সর্বনাশ! বিড়াল ভেবে বাঘের বাচ্চা পুষছিলেন দম্পতি !

সর্বনাশ! বিড়াল ভেবে বাঘের বাচ্চা পুষছিলেন দম্পতি !
যেই না ছানা বড় হল দম্পতির মাথায় হাত! তারা করেছে টা কি? বিড়াল ভেবে কিনে ফেলেছে বাঘের ছানা!

যেই না ছানা বড় হল দম্পতির মাথায় হাত! তারা করেছে টা কি? বিড়াল ভেবে কিনে ফেলেছে বাঘের ছানা!

  • Share this:

    #ফ্রান্স: বিড়াল পোষার শখ হয়েছিল এক দম্পতির। সেই মতো কিনেও ফেলা হল একটি ফুটফুটে সাভানাহ প্রজাতির বিড়াল ছানা। কিন্তু যেই না ছানা বড় হল দম্পতির মাথায় হাত! তারা করেছে টা কি? বিড়াল ভেবে কিনে ফেলেছে বাঘের ছানা!

    নরমান্ডির বন্দর শহর লে হাভেরের এই দম্পতি একটি অনলাইন বিজ্ঞাপন দেখে বিড়ালটি কিনতে চেয়েছিলেন। এটি আফ্রিকান সার্ভাল এবং একটি গৃহপালিত বিড়ালের মধ্যে ক্রস, ফ্রান্সে এহেন হাইব্রিড প্রাণী পোষ্য রাখা আইনী।

    ৬০০০ ইউরো দিয়ে সেই বিড়াল কেনে দম্পতি। বাড়িতে নিয়ে আসে... দিব্য সারা বাড়িতে ঘুরে বেরায় ছোট্ট ছানা... স্বামী-স্ত্রী দু'জনেই মহা খুশি! কিন্তু কয়েক সপ্তাহ যেতে না যেতেই তাঁদের মনে কেমন জানি সন্দেহ বাসা বাঁধে! প্রাণীটা কি সত্যি বিড়াল না অন্য কিছু? ধন্ধে পড়ে যান দম্পতি। ডেকে আনে স্থানীয় পুলিশকে। আসেন বন দফতরের আধিকারিকরা। ছোট্ট চানাটিকে পরীক্ষা করে দেখা যায়, মোটেও বিড়াল নয়, সেটি আসলে একটি সুমাত্রার বাঘের বাচ্চা।


    এই ঘটনার মাধ্যমে পর্দা সরল গত ২ বছর ধরে চলতে থাকা পশু পাচার তদন্তের। গ্রেফতার হয়েছে ৯ জন। যে দম্পতি বিড়াল ভেবে বাঘের বাচ্চাটি কিনেছিল, তাঁদেরও আটক করা হয়। যদিও তাঁদের পরে ছেড়ে দেয় পুলিশ।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    লেটেস্ট খবর