• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • অভিনব উদ্যোগ, এভারেস্টে পর্বতারোহীদের ফেলে যাওয়া বর্জ্য থেকে তৈরি হবে অভিনব শিল্পকীর্তি

অভিনব উদ্যোগ, এভারেস্টে পর্বতারোহীদের ফেলে যাওয়া বর্জ্য থেকে তৈরি হবে অভিনব শিল্পকীর্তি

photo/firstpost

photo/firstpost

যাত্রাপথে পড়ে থাকতে দেখা যায় খাবারের ক্যান, ছেঁড়া দড়ি, তাঁবু, অক্সিজেনের বোতল, ভাঙা মই এবং আরও অনেকরকম জিনিস। এর ফলে দূষিত হচ্ছে এভারেস্টের বাতাস এবং পরিবেশ।

  • Share this:

    #কাঠমান্ডু: পর্বতারোহীদের ফেলে আসা বিভিন্ন জিনিস সংগ্রহ করে হবে অভিনব শিল্পকীর্তি। বিশ্বের উচ্চতম শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্ট জয় করার লক্ষ্য নিয়ে প্রতিবছর অভিযানে যান হাজার হাজার পর্বতারোহী। যাত্রাপথে পড়ে থাকতে দেখা যায় খাবারের ক্যান, ছেঁড়া দড়ি, তাঁবু, অক্সিজেনের বোতল, ভাঙা মই এবং আরও অনেকরকম জিনিস। এর ফলে দূষিত হচ্ছে এভারেস্টের বাতাস এবং পরিবেশ। তাই নেপালে এবার দেশের গর্ব এভারেস্ট বাঁচানোর অভিনব উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন ফেলে আসা জিনিস দিয়ে শিল্প সৃষ্টি করা যায় সেটা করে দেখানোর দায়িত্বে রয়েছেন টমি গুস্তফসন। তিনি জানান এই কাজে স্থানীয় বাসিন্দাদের পাশাপাশি বিদেশি শিল্পীদের সাহায্য নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। একটি সংগ্রহশালা বানানোর ভাবনা রয়েছে।

    টমি জানাচ্ছেন এর ফলে একদিকে যেমন পরিবেশ রক্ষা হবে, তেমনই অন্যদিকে স্থানীয় মানুষের উপার্জনের ব্যবস্থা করা যাবে। গোটা পৃথিবীর কাছে যা নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে। বর্জ্য নিয়ে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি বদলানো একটা চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছেন প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা টমি। ৩৭৮০ মিটার উচ্চতায় একটি বেসক্যাম্প রয়েছে। আসলে এই জায়গা থেকেই শৃঙ্গ জয়ের মূল অভিযান শুরু হয়। সেখানেই হবে সংগ্রহশালা। ইচ্ছে হলে স্মারক হিসেবে কোনও জিনিস নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা থাকছে।

    এমনিতেই দুর্গম এলাকা থেকে বর্জ্য সংগ্রহের কাজ বিভিন্ন পরিবেশে সংগঠন কয়েক বছর ধরে করে আসছে। এবার একটি নতুন প্রকল্প চালু করার ভাবনা রয়েছে। তাতে প্রত্যেক অভিযাত্রীকে একটি ব্যাগে কম করে এক কেজি বর্জ্য ফেরত আনার অনুরোধ করা হবে। লুকলা পর্যন্ত আনা গেলে বাকিটা কাঠমান্ডু নিয়ে যাওয়া হবে আকাশপথে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা অভিযাত্রীদের এই অভিযানে আনা গেলে পরিবেশ অনেকটাই রক্ষা করা যাবে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: