Home /News /international /
দুবাই মেরিনার বহুতলের বারান্দায় নগ্ন হয়ে ফটোশুট একদল মহিলার; তারপর...

দুবাই মেরিনার বহুতলের বারান্দায় নগ্ন হয়ে ফটোশুট একদল মহিলার; তারপর...

দুবাই মেরিনার বহুতলের বারান্দায় নগ্ন হয়ে ফটোশুট একদল মহিলার; তার পর?

দুবাই মেরিনার বহুতলের বারান্দায় নগ্ন হয়ে ফটোশুট একদল মহিলার; তার পর?

অশ্লীল ভিডিওতে সামিল হওয়া মহিলাদের অশালীন আচরণ এবং নৈতিকতা ক্ষুণ্ণ করার অপরাধের অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

  • Share this:

#দুবাই: প্রকাশ্য দিনের আলোয় একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা সামনে এল দুবাইয়ে। জানা যায়, একটি বহুতলের বারান্দায় সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে ফটোশ্যুট এবং ভিডিও শ্যুট করার ফলে গ্রেফতার করা হল একদল মহিলাকে। এই পুরো ঘটনাটিকে ভিডিও করা হয় পাশের একটি বহুতল থেকে । ওই রেকর্ড ভিডিওতে দেখা যায় যে, দুবাই মেরিনার একটি পেন্টহাউস অ্যাপার্টমেন্টের সামনে বেশ কয়েকজন নগ্ন মহিলা ফটোশ্যুট করছিলেন। ফুটেজে আরও দেখা যায় যে এক ব্যক্তি ওই বহুতলের বারান্দায় দাঁড়িয়ে মহিলাদের ছবি তুলছিলেন। ঘটনার ক্লিপটি Twitter-এও শেয়ার করা হয়।

অন্য দিকে, দুবাই পুলিশের বক্তব্য, অশ্লীল ভিডিওতে সামিল হওয়া মহিলাদের অশালীন আচরণ এবং নৈতিকতা ক্ষুণ্ণ করার অপরাধের অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে। জাতীয় প্রতিবেদনে আরও জানানো হয় যে ওই মহিলারা পাবলিসিটি পাওয়ার জন্যই নগ্ন হয়ে ভিডিও শ্যুট করছিলেন।

উল্লেখ্য, সংযুক্ত আরব আমিরাতে বিশেষত সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের জন্য কঠোর সাইবার ক্রাইম আইন কানুন রয়েছে। এমন অগ্রহণযোগ্য আচরণ আমিরাতের মূল্যবোধ ও নীতির পরিপন্থী। অশ্লীল বা নৈতিকতা বিরোধী কোনও কিছু করলে জেল-সহ জরিমানাও হতে পারে। ঘটনাটির ছবি এবং ভিডিও রেকর্ডিং যে ব্যক্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন, তাঁর বিরুদ্ধেও একই আইন প্রযোজ্য। উল্লেখ্য, মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ আরব আমিরাতে নীতিগত আচরণ, যেমন লাইসেন্স ছাড়া মদ্যপান করা এবং জনসম্মুখে চুম্বন করার ক্ষেত্রেও জেল হয়েছিল এর আগে।

অন্য দিকে, দুবাই পুলিশের পক্ষ থেকে একটি সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “দুবাই পুলিশ এ জাতীয় অগ্রহণযোগ্য আচরণের বিরুদ্ধে মানুষকে সতর্ক করে, যা আমিরাতের সমাজের মূল্যবোধ ও নৈতিকতা নষ্ট করে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে আরও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পাবলিক প্রসিকিউশনে পাঠানো হয়েছে।”

বিবৃতিতে আরও বলা হয় যে, যদি কোনও ব্যক্তি অবৈধ ওয়েবসাইট, জুয়া বা পর্নোগ্রাফির মতো ওয়েবসাইটগুলি পরিচালনা করেন তবে তিনি জেল এবং জরিমানার মাধ্যমে দণ্ডিত হবেন। পাশাপাশি জরিমানা করা হবে দিরহাম ২৫০,০০০ থেকে দিরহাম ৫০০,০০০-এর মধ্যে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: Dubai

পরবর্তী খবর