ট্যুইটারে আর ফিরতে পারবেন না ট্রাম্প, জানালেন কোম্পানির প্রধান ফিন্যান্সিয়াল কর্মকর্তা

তিনি যদি আবারও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেও ট্যুইটারে অ্যাকাউন্ট ফিরে পাবেন না

তিনি যদি আবারও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেও ট্যুইটারে অ্যাকাউন্ট ফিরে পাবেন না

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: জনপ্রিয় মাইক্রো ব্লগিং সাইট ট্যুইটারে আর ফিরতে পারবেন না সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প । এমনকি তিনি যদি আবারও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেও ট্যুইটারে অ্যাকাউন্ট ফিরে পাবেন না। বুধবার কোম্পানিটির প্রধান ফিন্যান্সিয়াল কর্মকর্তা এই তথ্য জানিয়েছেন। সিএনবিসি টেলিভিশন নেটওয়ার্ককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্যুইটারে কর্মকর্তা নেড সেগাল বলেন, যখন কাউকে তাঁদের প্ল্যাটফর্ম থেকে বাদ দেওয়া হয় তখন তিনি একজন সিএফও বা বর্তমান কিংবা সাবেক সরকারি কর্মকর্তা হলেও আর ফিরতে পারে না। এটিই তাঁদের নীতি। ৬ জানুয়ারি মার্কিন কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে ট্রাম্প সমর্থকদের সহিংস হামলার ঘটনায় তাকে ট্যুইটারে ব্লক করা হয়। হামলার পর ফেসবুকসহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়াও ব্লক করা হয়। সেগাল বলেন, তাঁদের নীতি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে করে সহিংসতার উস্কানি ঠেকানো সম্ভব হয়। কেউ যদি এমনটি করে তাকে প্ল্যাটফর্ম থেকে বাদ দেওয়া হয়। তাঁদের নীতি অনুসারে তাঁর আর ফেরার সুযোগ নেই। ২০১৬ সালের নির্বাচনি প্রচার থেকে শুরু করে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ৪ বছর ট্যুইটারকে ব্যাপকভাবে কাজে লাগিয়েছেন ট্রাম্প। এমনকি নিজের নীতি ঘোষণা, সমঝোতা ও রাজনৈতিক প্রচারেও এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করেন তিনি। অ্যাকাউন্ট বাতিলের আগে তার ৮ কোটি ফলোয়ার ছিল। প্রসঙ্গত, আমেরিকার কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটল হিলে নজিরবিহীন হিংস্রতার পর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকের ৭০ হাজার ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়। ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ জানায়, ষড়যন্ত্র মূলক পোস্ট শেয়ার করায় এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা অনেকদিন ধরেই ‘কিউঅ্যানন’ নামে একটি ষড়যন্ত্র স্থাপনের চেষ্টা করেন। সেই তত্ত্বের ভিত্তিতে প্রচার করা হয়, ট্রাম্পকে সরাতে শিশু যৌন নিপীড়নকারীরা একজোট হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছেন ডেমোক্র্যাটদের বড় নেতা, এমনকি হলিউড সেলেব্রিটিরাও।

    Published by:Simli Dasgupta
    First published: