corona virus btn
corona virus btn
Loading

যৌন কামনা আটকাতে কেটে ফেলা হল যৌনাঙ্গ, রক্তক্ষরণে মৃত্যু কিশোরীর

যৌন কামনা আটকাতে কেটে ফেলা হল যৌনাঙ্গ, রক্তক্ষরণে মৃত্যু কিশোরীর

যৌনাঙ্গ কেটে ফেলায় মৃত্যু হয় কিশোরীর

  • Share this:

#মিশর:  মেয়ে হয়ে জন্মেছে, তাই যৌন কামনা থাকা পাপ... কাজেই ছোট বয়সেই কেটে ফেলা হল যৌনাঙ্গ। শুধুমাত্র কুসংস্কারের জেরেই মৃত্যু হল ১২ বছরের কিশোরীর। ভয়াবহ, বর্বর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ মিশরের আসিয়ুত প্রদেশে। জানা গিয়েছে, আর কেউ নন, খোদ কিশোরীর বাবা-মাই নাকী নাকে নিয়ে যায় চিকিৎসকের কাছে। চিকিৎসক অস্ত্রোপচার করে কেটে ফেলে যৌনাঙ্গ। এরপরই শুরু হয় কিশোরীর রক্তক্ষরণ। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জেরেই প্রাণ হারায় ১২ বছরের ফুটফুটে কিশোরী।

২০০৮ সালে মিশরের সংসদে মহিলাদের যৌনাঙ্গছেদের প্রথা নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করা হয়। ২০১৬ সালের একটি সমীক্ষায় দেখা যায়, ১৫ থেকে ৮৭ বছর বয়সী মহিলাদের মধ্যে ৮৭ শতাংশ মহিলাদেরই যোনিচ্ছেদ করা হয়েছে। সেই বছরই এই আইনে কঠোর সাজার কথাও ঘোষণা করা হয়। কিন্তু মিশরে আইন রয়েছে আইনের মত, কুসংস্কার তার জয়োধ্বজা উড়িয়েই চলেছে। যদিও এই ঘটনার পর আইন কিশোরীর বাবা, মা ও চিকিৎসকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়। female genital mutilation (FGM) পদ্ধতির মাধ্যমে কিশোরীর জোনিচ্ছেদ করা হয়। এই প্রক্রিয়াটি নিষিদ্ধ।

First published: February 3, 2020, 10:39 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर