corona virus btn
corona virus btn
Loading

গণ আন্দোলনে উত্তাল আমেরিকা, কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার অভিযোগে জ্বলছে দেশ

গণ আন্দোলনে উত্তাল আমেরিকা, কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার অভিযোগে জ্বলছে দেশ
A man wearing a face mask holds a sign near a burning vehicle at the parking lot of a Target store during protests after a white police officer was caught on a bystander's video pressing his knee into the neck of African-American man George Floyd, who later died at a hospital, in Minneapolis, Minnesota, US on May 28, 2020. (Photo: REUTERS/Carlos Barria)

আমেরিকায় একদিকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যু মিছিল চলছে। অন্যদিকে সরকারের বিরুদ্ধে এই তীব্র আন্দোলন ভিত নাড়িয়ে দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসনের

  • Share this:

#নিউইয়র্ক: জর্জ ফ্লয়েড!‌ শেষ মুহূর্তে বলেছিলেন, ‘‌আমি শ্বাস নিতে পারছি না।’‌ তারপর শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসারের হাতে অত্যাচারের জন্যই মৃত্যু হয়েছিল এই কৃষ্ণাঙ্গ মার্কিনির। তারপর থেকেই বর্ণবৈষম্য বিরোধী আন্দোলনে উত্তাল হয়েছে আমেরিকা। মিনিয়াপোলিসের ঘটনার আঁচ এসে পড়েছে নিউ ইয়র্ক, আটলান্টা, ডেট্রয়েট, হিউস্টন, বিভিন্ন শহরে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে বার্তা দিয়েছেন খোদ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মৃত জর্জ ফ্লয়েডের পরিবারের সঙ্গেও তিনি কথা বলেছেন। কিন্তু মার্কিন মুলুকে কৃষ্ণাঙ্গদের ওপর দীর্ঘদিনের অত্যাচারের অভিযোগ তুলে জনরোষ যেন থামতেই চাইছে না।

জর্জের মৃত্যুর পর খানিকটা জনরোষের চাপে পড়েই অভিযুক্ত পুলিশ অফিসার ডেরেক শাভিনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। গ্রেফতার করে তাঁকে আদালতে পেশ করাও হয়েছে। কিন্তু কৃষ্ণাঙ্গরা তীব্র থেকে তীব্রতর আন্দোলনের দিকে এগিয়ে চলেছেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মিনিয়াপোলিসের মেয়র কারফিউ জারি করেছেন। কিন্তু সেই নির্দেশ ভেঙেই পথে নেমে পড়েছেন বিক্ষোভকারীরা। কেউ ভেঙে দিয়েছেন দোকান, লুঠ হয়ে গিয়েছে অনেককিছু। দেওয়ালে দেওয়ালে দেওয়ালে লেখা হয়েছে প্রতিবাদী স্লোগান। পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিতে গেলে প্রতিবাদীরা তেড়ে এসেছেন বিয়ারের বোতল, পাথর নিয়ে। ছোঁড়া হয়েছে আতশবাজিও। ‌বিভিন্ন শহরে পরিস্থিতি সামলাতে নেমে পড়েছে আমেরিকার জাতীয় রক্ষা বাহিনী।

আমেরিকায় একদিকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যু মিছিল চলছে। অন্যদিকে সরকারের বিরুদ্ধে এই তীব্র আন্দোলন ভিত নাড়িয়ে দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসনের। বলা হচ্ছে, এত বিক্ষোভকারী রাস্তায় রয়েছেন যে আমেরিকার সবগুলি সংশোধনাগারে তাঁদের গ্রেফতার করে আটকে রাখলেও অসংখ্য মানুষ বাইরে থেকে যাবেন। তাই এখন কোনওরকমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে মার্কিন প্রশাসন।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: May 30, 2020, 9:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर