Coronavirus: মারণ করোনা ভাইরাসে চিনে মৃত্যু মিছিল! মৃত বেড়ে ১৭০

Coronavirus: মারণ করোনা ভাইরাসে চিনে মৃত্যু মিছিল! মৃত বেড়ে ১৭০
করোনা ভাইরাস

এর মধ্যে ৩৭ জনেরই মৃত্যু হয়েছে চিনের হুবেই প্রদেশ ও সিচুয়ান প্রদেশে৷ ওই দুই প্রদেশই হল করোনা ভাইরাসের এপিসেন্টার৷ ইউহান থেকে ১৯৫ জন মার্কিন নাগরিককে উদ্ধার করা হয়েছে৷

  • Share this:

#বেজিং: মারণ করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে চিনে মৃতের সংখ্যা ১৭০ ছুঁয়ে গেল৷ চিনে আটকে থাকা বিদেশি পর্যটকরা দেশে ফেরার চেষ্টা করছেন৷ তাঁরা কেউ কোরোনা ভাইরাস আক্রান্ত কি না, সে দিকে নজর চিন সরকার৷ বিশ্ব স্বাস্থ সংস্থাকে সবচেয়ে বেশি ভাবাচ্ছে, চিনের বাইরেও বহু মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে৷ চিনে এখনও পর্যন্ত ৭ হাজার ৭১১ জন করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে৷ গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে৷

এর মধ্যে ৩৭ জনেরই মৃত্যু হয়েছে চিনের হুবেই প্রদেশ ও সিচুয়ান প্রদেশে৷ ওই দুই প্রদেশই হল করোনা ভাইরাসের এপিসেন্টার৷ ইউহান থেকে ১৯৫ জন মার্কিন নাগরিককে উদ্ধার করা হয়েছে৷ কারণ হুবেই প্রদেশে বসবাস করেন ১.১ কোটি৷ ২১০ জন জাপানি নাগারিককে চার্টার ফ্লাইটে চিন থেকে উদ্ধার করে টোকিয়োও পৌঁছে দেওয়া হয়েছে৷ তাঁদের মধ্যে ৯ জনের দেখা গিয়েছে জ্বর ও কাশি হচ্ছে৷ পরীক্ষার পরে দেখা যায়, ওই ৩ জনই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত৷ ফ্রান্স, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও অন্যান্য দেশও তাদের নাগরিকদের দেশে ফেরাচ্ছে৷

২০০২-০৩ সালে যে ভাবে SARS ছড়িয়ে পড়েছিল চিনে, ঠিক সেই ভাবেই যেন মারণ করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে৷ ভারতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগীর খোঁজ মেলেনি। বাছাই করা দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ওপর নিয়মিত নজরদারি চলছে। তবে, বিভিন্ন হাসপাতালে কয়েকজনকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে ৷ এখনও কারোর রক্তেই করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি মেলেনি৷ তবে নেপালে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খোঁজ মেলায় বাড়তি সতর্কতা ৷ নিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক ভারত, নেপাল সীমান্ত সংলগ্ন রাজ্যগুলিকে সতর্ক করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক ৷ উত্তরাখণ্ডের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা জারি হয়েছে৷

চিনের ইউহানে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার পরও যথেষ্ট সতর্কতা নিতে পারেনি চিনা প্রশাসন। এ থেকে শিক্ষা নিয়ে তৈরি থাকতে চাইছে কেন্দ্র। শনিবার করোনা নিয়ে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিল, ভাইরাল অ্যান্ড ব্যাকটেরিয়া প্রিভেনশমন কমিটির মতো বেশ কিছু সংস্থাকে নিয়ে বৈঠক হয় ৷ বৈঠকে বিভিন্ন রাজ্যে বিশেষজ্ঞ দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয় ৷

করোনা মোকাবিলায় চালু হয়েছে ২৪ ঘণ্টার কন্ট্রোল রুম ও টোল ফ্রি নম্বর। টোল ফ্রি নম্বর +91-11-23978046 নম্বরে যোগাযোগ করতে হবে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় প্রস্তুতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে রিপোর্ট দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন।

First published: January 30, 2020, 8:57 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर