• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • ইমরান সরকারের দুর্নীতিতে রেগে লাল চিন, বন্ধ হতে পারে ইকনমিক করিডর

ইমরান সরকারের দুর্নীতিতে রেগে লাল চিন, বন্ধ হতে পারে ইকনমিক করিডর

photo source/ financial express

photo source/ financial express

চিনা ইঞ্জিনিয়ারদের কাজ করা কঠিন হয়ে উঠেছে পাকিস্তানে। অবস্থা এতটাই খারাপ পর্যায়ে পৌঁছেছে শোনা যাচ্ছে চিন-পাকিস্তান ইকনমিক করিডর থেকে ইউটার্ন নিতে চলেছে বেজিং।

  • Share this:

    #করাচি: শীত,গ্রীষ্ম,বর্ষা- চিন পাকিস্তানের ভরসা। বিভিন্ন নৈতিক এবং অনৈতিক কারণে পৃথিবীতে ক্রমশ এক ঘরে হয়ে পড়া পাকিস্তানকে সমর্থন জানিয়ে এসেছে চিন। মাসুদ আজহার থেকে শুরু করে কালো তালিকাভুক্ত দেশ হওয়ার আশঙ্কা থেকে চিনের স্নেহের হাত সবসময় ছিল পাকিস্তানের ওপর। যদিও সেটা একান্তই নিজেদের স্বার্থে, তবুও ইসলামাবাদ অক্সিজেন পেত বেজিং থেকে। কিন্তু পাকিস্তানের বন্ধু চিন এখন রেগে লাল। একদিকে লাগাতার দুর্নীতি,অন্যদিকে জঙ্গি হামলা। চিনা ইঞ্জিনিয়ারদের কাজ করা কঠিন হয়ে উঠেছে পাকিস্তানে। অবস্থা এতটাই খারাপ পর্যায়ে পৌঁছেছে শোনা যাচ্ছে চিন-পাকিস্তান ইকনমিক করিডর থেকে ইউটার্ন নিতে চলেছে বেজিং।

    ধাপে ধাপে এই প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে বেজিং। প্রবল চাপের মুখে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। প্রতিদিন ঋণের বোঝা বেড়ে চলেছে, দেশে মুদ্রাস্ফীতির এমন হাল আগে দেখা যায়নি। লাহোরের বাজারে একটি ডিমের দাম তিরিশ টাকা,আদা হাজার টাকা কিলো। এবার সিপিইসি প্রকল্পে চিনা আস্থা খোয়ানোর দায়ে কাঠ গড়ায়। একটা সময় ইমরান খান বেশকিছু সিপিইসি প্রকল্প আটকে দিয়েছিলেন দুর্নীতির অভিযোগে। কিন্তু শেষ দুই বছরে ইমরানের মন্ত্রিসভার একাধিক সদস্যের নাম জড়িয়ে পড়েছে দুর্নীতির দায়ে। এই মুহূর্তে পাকিস্তানে চলা চিনের ১২২ টি প্রকল্পের ভেতর শুধু ৩২ টি প্রকল্প পূর্ণতা পেয়েছে।

    ফান্ডিং এক ধাক্কায় অনেকটা কমিয়ে দিয়েছে চিন। পাকিস্তানের এমন আর্থিক মন্দার সময় চিন হাত তুলে নিলে পরিস্থিতি আরও জটিল হবে সেটাই স্বাভাবিক। শোনা যাচ্ছে ইমরান সরকার চিনকে অনুরোধ করেছে বিনিয়োগ বন্ধ না করার জন্য। পাকিস্তান সেনার বিশাল বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে চিনা ইঞ্জিনিয়ারদের সুরক্ষায়। পুরো ব্যাপারটাই নিজেদের দখলে নিয়েছে পাক সেনা। কিন্তু অনিশ্চিত হয়ে পড়া প্রকল্পে পাকিস্তান মনে করছে এখনও পর্যন্ত পরিস্থিতি হাতের বাইরে যায়নি। ভবিষ্যতে প্রকল্প পরিচালনায় যৌথ উদ্যোগে নতুন কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: