Coronavirus| চলে এল ভ্যাকসিন? করোনার দু'টি ভ্যাকসিন মানুষের উপর পরীক্ষার ছাড়পত্র দিয়ে দিল চিন

প্রতিষেধকটি যে গবেষকরা তৈরি করেছেন, তাঁদের দাবি, এটি ৯৯ শতাংশ কার্যকর হতে চলেছে৷ বেজিং-এ সংস্থা একটি প্লান্ট তৈরি করছে৷ সেখানেই প্রতিষেধকটির ১০ কোটি ডোজ তৈরি হবে৷ সবার প্রথমে যাঁদের সংক্রামিত হওয়ার আশঙ্কা সবথেকে বেশি, তাঁদের উপরে এই প্রতিষেধক প্রয়োগ করা হবে৷ PHOTO- FILE

বেজিং-এর সাইনোভাক বায়োটেক ও উহান ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিক্যাল প্রডাক্টস যৌথ ভাবে দুটি ভ্যাকসিন তৈরি করেছে৷

  • Share this:

    #বেজিং: গোটা বিশ্বই করকোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে৷ নোভেল বা COVID19 নামক মারণ ভাইরাসটি প্রথম দেখা দিয়েছিল চিনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে৷ সেই চিনেই এ বার দুটি করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনকে মানুষের উপর ট্রায়ালের অনুমতি দিয়ে দিল চিন সরকার৷ করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সামলাতে চিন এখন মরিয়া৷

    বেজিং-এর সাইনোভাক বায়োটেক ও উহান ইনস্টিটিউট অফ BIবায়োলজিক্যাল প্রডাক্টস যৌথ ভাবে দুটি ভ্যাকসিন তৈরি করেছে৷ চিনের সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম Xinhua জানিয়েছে, চিনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন ভ্যাকসিন দুটিতে অনুমোদন দিয়ে দিয়েছে৷ এ বার সেগুলি মানুষের উপর ট্রায়াল শুরু হচ্ছে৷

    আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা হংকং থেকে জানিয়েছে, তিনটি ভ্যাকসিন চিনে টেস্ট করা হবে৷ জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন বেশি কিছু শর্ত মিটিয়ে ফেলার পর বিশ্বজুড়ে ওই ভ্যাকসিন ব্যবহারের জন্য ভাবনা চিন্তা করা হবে৷ গত মার্চে আরও একটি ভ্যাকসিনের গবেষণায় সবুজ সঙ্কেত দিয়েছিল বেজিং। ওই ভ্যাকসিনের উপর পরীক্ষামূলক গবেষণা চলে চিনের মিলিটারি মেডিক্যাল সায়েন্স এবং বায়োটেক ফার্ম ক্যানসিও বায়োতে। চিন জানিয়েছে, এই ভ্যাকসিনেরও ক্লিনিকাল ট্রায়াল হবে মানুষের উপরে।

    জানা গিয়েছে, প্রায় ৫০০ স্বেচ্ছাসেবী ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য এগিয়ে এসেছেন৷ জানা গিয়েছে, সাধারণত কোনও ভ্যাকসিন তৈরি হলে প্রথমে ছোট জন্তুর উপর পরীক্ষা করাী হয়৷ কিন্তু সোজা মানুষের উপর পরীক্ষা করতে চলেছে৷ অত্যন্ত সাহসী পদক্ষেপ৷ সে ক্ষেত্রে বেশির ভাগ বয়স্ক লোকদের উপরেই ট্রায়াল হবে৷ কারণ, করোনা ভাইরাসে বয়স্ক লোকদেরই বেশি মৃত্যু হয়েছে৷

    Published by:Arindam Gupta
    First published: