বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

আকাশপথে সিরিঞ্জ আঁকা, সঙ্গে হার্ট সাইন; ভ্যাকসিন নিয়ে এমনই বার্তা দিলেন কানাডার পাইলট!

আকাশপথে সিরিঞ্জ আঁকা, সঙ্গে হার্ট সাইন; ভ্যাকসিন নিয়ে এমনই বার্তা দিলেন কানাডার পাইলট!

করোনার প্রকোপ শুরু হয়েছে এক বছর হয়ে গেল। করোনার জেরে বিধ্বস্ত জনজীবন।

  • Share this:

#লস অ্যাঞ্জেলেস: করোনার প্রকোপ শুরু হয়েছে এক বছর হয়ে গেল। করোনার জেরে বিধ্বস্ত জনজীবন। এই পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিনের প্রয়োজনীয়তা সব চেয়ে বেশি। ভ্যাকসিন নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চললেও সে ভাবে কোনও ভ্যাকসিন বাজারে আসেনি যা সকলকে দেওয়া যাবে বা দিলেই কাজ হবে। এহেন অবস্থায় ভ্যাকসিনের প্রতীকী সিরিঞ্জ (সিরিঞ্জ দিয়ে ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে) আকাশে আঁকলেন এক পাইলট। তাও বিমানের ধোঁয়া দিয়ে। করোনা পরিস্থিতি সামলাতে না সামলাতেই নতুন করোনা স্ট্রেইন নিয়ে মাথা ব্যথা শুরু হয়েছে। ব্রিটেনে ইতিমধ্যেই লকডাউন চালু হয়ে গিয়েছে। ব্রিটেনের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি দেশও লকডাউনের পথে হাঁটছে। এই পরিস্থিতিতে সব থেকে অধীর আগ্রহে যার দিকে মানুষ তাকিয়ে রয়েছে, তা হল ভ্যাকসিন। এই ভ্যাকসিন নিয়ে মানুষের মনে আশা জাগাতে ও ভ্যাকসিনের বিশ্বাসযোগ্যতা গড়ে তুলতে আকাশে সিরিঞ্জ আঁকলেন কানাডার এক পাইলট।  FlightRadar 24 নামের একটি ট্যুইটার (Twitter) হ্যান্ডেল থেকে শেয়ার করা এই ছবি ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, সিরিঞ্জের সঙ্গে একটি বড় হার্ট সাইন আঁকা রয়েছে। এই ছবিটি এই ভাবে আঁকা হয়েছে নায়াগ্রা ফলসের পাশে।

https://twitter.com/flightradar24/status/1349045184491884552 ছবিটিতে স্পষ্ট বোঝা যায় একটি এয়ারক্র্যাফ্ট নায়াগ্রা সেন্ট্রাল ডরোথি রাঙ্গেলিং এয়ারপোর্ট থেকে ওড়ে এবং তার পর গোটা এলাকায় অর্থাৎ আকাশে এই ভাবে সিরিঞ্জের ছবি এঁকে অবতরণ করে। এয়ারক্র্যাফ্টটির নাম Van's RV-4 যার কোড CFOUU। তবে, কোন পাইলট এই কাজ করেছেন, তা জানা যায়নি। অনেকেই পাইলটের চিন্তা-ভাবনাকে স্বাগত জানিয়েছে। অনেকে আবার তাঁর এই কাজের প্রশংসা করেছেন। অনেকে বলেছেন, আকাশে এই ভাবে ছবি আঁকা যায়, তা বিশ্বাসই করা যায় না। অনেকে আবার ছবি আঁকার চেষ্টাকে কুর্নিশ করেছেন। https://twitter.com/jcmanc/status/1349045752543256577 তবে, তথ্য় বলছে, আকাশে এই ভাবে আঁকা এই প্রথম নয়। এর আগেও বহু কারণে এমন কাজ করেছেন অনেকে। Indian Express-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্ণবিদ্বেষের বিরোধিতা করে কিছু দিন আগে কানাডার নোভা স্কটিয়ার এক পাইলট এমন ছবি আঁকের আকাশে। পরে জানা যায়, তাঁর নাম দিমিত্রি নেওনাকিস। তিনি ৩৩০ নটিক্যাল মাইল পেরিয়ে ব্ল্যাক লাইভ ম্যাটার্সের ফিস্ট লোগো আঁকেন আকাশে। https://twitter.com/flightaware/status/1268609747034361857 এই ছবিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফর জর্জ বলে অনেকেই এই ছবি শেয়ার করেন। বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ মন ছুঁয়ে যায় নেটিজেনদের।

Published by: Akash Misra
First published: January 14, 2021, 7:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर