বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্বামীর গলায় চেন বেঁধে হাঁটাতে নিয়ে গেলেন মহিলা নাইট কারফিউয়ের সময়ে; তার পর?

স্বামীর গলায় চেন বেঁধে হাঁটাতে নিয়ে গেলেন মহিলা নাইট কারফিউয়ের সময়ে; তার পর?

স্বামীর গলায় চেন বেঁধে পোষ্যের মতো তাঁকে হাঁটাতে নিয়ে গিয়েছিলেন বাড়ির বাইরে।

  • Share this:

#টরেন্টো: ঘটনাকে কী ভাবে ব্যাখ্যা করা যায়, তা পুলিশ এখনও বুঝে উঠতে পারছে না। তবে এরকম কাণ্ড যে এর আগে দেখা যায়নি, সেটাও স্বীকার করে নিতে বাধ্য হয়েছে তারা।

খবর বলছে যে সম্প্রতি এক মহিলা তাঁর স্বামীর গলায় চেন বেঁধে পোষ্যের মতো তাঁকে হাঁটাতে নিয়ে গিয়েছিলেন বাড়ির বাইরে। সেই সময়ে সেখানে নাইট কারফিউ চলছিল। ঘটনাটি কানাডার কিউবেক শহরের। করোনাবিধি ভঙ্গ করার অভিযোগে দেখা মাত্র তাঁদের আটক করে কানাডা পুলিশ।

জানা গিয়েছে যে কানাডায় এখন করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে দ্রুত বেগে। পরিস্থিতি অত্যন্ত সঙ্কটজনক। প্রতি দিনে গড়ে প্রায় ২৫০০ মানুষ নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন করোনায়। এই রকম এক অবস্থায় চিকিৎসার পরিকাঠামোও প্রায় ভেঙে পড়ার মুখে এসে দাঁড়িয়েছে ওই দেশে। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কানাডার বিভিন্ন প্রান্তের মতো কিউবেকও নিজের মতো করে পদক্ষেপ করেছে। আপাতত সেখানে লকডাউন চলছে, যা চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের ৮ তারিখ পর্যন্ত জারি থাকবে বলে খবর মিলেছে। পাশাপাশি, রাত ৮টার পর থেকে কিউবেক শহরে শুরু হচ্ছে নাইট কারফিউ, তা চলছে ভোর ৫টা পর্যন্ত।

এ হেন পরিস্থিতিতে একমাত্র জরুরি পরিষেবা ছাড়া রাত ৮টার পরে আর সব কিছুই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে কিউবেকে। তার মধ্যেই রাস্তায় এক মহিলা এবং তাঁর সঙ্গে চেন দিয়ে বাঁধা এক পুরুষসঙ্গীকে দেখে হকচকিয়ে যায় পুলিশ। তারা জানতে চায় যে নাইট কারফিউ চলাকালীন ওই মহিলা কেন পথে নেমেছেন! সওয়াল-জবাবের মধ্যে মহিলার সঙ্গে পুলিশের রীতিমতো বচসাও বেঁধে যায় বলে জানা গিয়েছে খবরে।

পুলিশের কাছে ওই মহিলার বক্তব্য- তিনি নাইট কারফিউ এবং করোনাবিধি ভঙ্গ করেনি! নিয়ম মেনে বাড়ির ১ কিলোমিটারের মধ্যে তিনি পোষ্যকে নিয়ে বেরিয়েছেন! তাঁর এই জবাবে স্তম্ভিত হয়ে যান পুলিশকর্মীরা। তাঁরা জানতে চান যে একজন মানুষ কী করে পোষ্য হতে পারে! প্রত্যুত্তরে মহিলা বার বার তাঁর সঙ্গীকে পোষ্য বলেই দাবি করতে থাকেন। পরে জানা যায় যে ওই ব্যক্তি মহিলার স্বামী!

যাই হোক, পুলিশ পরিস্থিতি বিবেচনা করে কথা কাটাকাটি বেশি দূর এগোয়নি। তারা শুধু জরিমানা আদায় করে বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে ওই মহিলা এবং তাঁর স্বামীকে। জরিমানার অঙ্কটা অবশ্য একেবারে কম নয়। খবর বলছে, তার পরিমাণ ১৫০০ ডলার। মানে ভারতীয় মুদ্রায় ১ লক্ষ ৯ হাজার ৯৩৪ টাকা!

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: January 13, 2021, 11:32 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर