Viral video: কলার বোন নেই, কাঁধ দিয়ে তালি বাজিয়ে সেলিব্রিটি বিশেষ ভাবে সক্ষম তরুণ !

Viral video: কলার বোন নেই, কাঁধ দিয়ে তালি বাজিয়ে সেলিব্রিটি বিশেষ ভাবে সক্ষম তরুণ !

Bullied for Being Having No Collar Bones, Man Stuns Everyone as He 'Claps' with His Shoulders

এই বিশেষ ভাবে সক্ষম তরুণ তাঁর শারীরিক প্রতিন্ধকতাকেই করে তুলেছেন আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু!

  • Share this:

#ইন্ডিয়ানা: বিশেষজ্ঞরা সব সময়েই বলেন যে জীবনের দুর্বল দিকটিকেই যদি জোরের জায়গায় পরিণত করে তোলা যায়, তাহলে কোনও বাধাই আর গায়ে লাগে না! কথাটা বলা খুব সহজ, কিন্তু যাঁরা বিশেষ ভাবে সক্ষম তাঁরাই জানেন যে প্রত্যহ এর জন্য কতটা লড়াই চালিয়ে যেতে হয়! সবাই যে সেই লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত জয়ের হাসি হাসতে পারেন, এমনটাও নয়! তবে কোরি বেনেট পেরেছেন! এই বিশেষ ভাবে সক্ষম তরুণ তাঁর শারীরিক প্রতিন্ধকতাকেই করে তুলেছেন আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু!

জানা গিয়েছে যে খুব ছোট থেকেই ইন্ডিয়ানার বেনেট এক বিশেষ ধরনের হাড়ের অসুখে আক্রান্ত। এই অসুখের পোশাকি নাম ক্লাইডোক্রেনিয়াল ডিসপ্লাসিয়া (Cleidocranial Dysplasia)। এই অসুখে নানা রকম হাড়ের সমস্যা দেখা দেয়, বাধা তৈরি হয় শরীরের স্বাভাবিক বিকাশেও। বেনেটের যেমন কলার বোন বলে কিছু নেই!

বিশেষ ভাবে সক্ষম মানুষদের নিয়ে সমাজের অনেকেই নানা নির্মম রসিকতা করে থাকেন! বেনেট জানিয়েছেন যে তাঁকেই এই ধরনের রসিকতার মুখে পড়তে হয়েছে। খুব ছোট থেকেই কলার বোন না থাকা এবং অতিরিক্ত বড় মাথার জন্য স্কুলের ছেলেরা তাঁকে নিয়ে মজা করত। এই অসুখে বেনেটের দাঁতগুলোও এবড়ে-খেবড়ো, সেটা নিয়েও কম উপহাসের শিকার তাঁকে হতে হয়নি।

কিন্তু বেনেট নিজের জীবনের এই প্রতিবন্ধকতাকে পাত্তা দেননি! বন্ধুদের তিনি কাঁধে কাঁধ ঠুকে তালি বাজিয়ে আনন্দ দিতেন। সেখান থেকেই একদিন এক বন্ধু TikTok-এ তাঁর একটা অ্যাকাউন্ট তৈরি করে দেন। সেই শুরু! তার পর থেকে বেনেটের সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে!

বেনেট জানিয়েছেন যে সোশ্যাল মিডিয়া ইউজারদের কাছ থেকে তিনি রীতিমতো মানসিক সমর্থন পেয়ে থাকেন। সবাই তাঁর এই বিশেষ ভাবে সক্ষমতাকে কুর্নিশ জানান। অনেকে আবার শুধুই কাঁধে কাঁধ ঠুকে তালি বাজানো দেখেই ক্ষান্ত থাকেন না। হাত দিয়ে যে সব কাজ করা যায়, তার কিছু কিছু তাঁরা কাঁধ দিয়ে বেনেটকে করে দেখানোর জন্য অনুরোধও জানান। বেনেটেরও তাতে আপত্তি থাকে না! ফলে কিছু দিন আগেই যে তিনি কাঁধ দিয়ে একটা কোল্ড ড্রিঙ্কসের খালি ক্যান চ্যাপ্টা করে দেখিয়েছেন, সে কথা জানিয়েছেন সগৌরবে।

পাশাপাশি বেনেট নিজের এই রোগ সম্পর্কে সচেতনতাও ছড়িয়ে দেন সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে, যাতে তাঁর মতো আরও পাঁচজন জীবনের নতুন দিশা খুঁজে পান!

Published by:Piya Banerjee
First published:

লেটেস্ট খবর