ব্রোঞ্জ যুগের পাথর না ইয়োরোপের প্রাচীনতম থ্রি-ডি মানচিত্র? ধন্দ কাটছে না বিজ্ঞানীদের!

ব্রোঞ্জ যুগের পাথর না ইয়োরোপের প্রাচীনতম থ্রি-ডি মানচিত্র? ধন্দ কাটছে না বিজ্ঞানীদের!

ব্রোঞ্জ যুগের পাথর না ইয়োরোপের প্রাচীনতম থ্রি-ডি মানচিত্র? ধন্দ কাটছে না বিজ্ঞানীদের!

সূত্রের খবর অনুযায়ী ১৯০০ সালে এই পাথর প্রথমবার আবিষ্কার করেন ফরাসি প্রত্নতাত্ত্বিক পল দুঁ শাঁতে।

  • Share this:

    #ফ্রান্স: ২০১৪ সালে ফ্রান্স থেকে আবিষ্কৃত একটি পাথর নিয়ে ধন্দে আছেন প্রত্নতাত্ত্বিকরা। তাঁরা অনুমান করছেন এই পাথর হল ইয়োরোপের প্রাচীনতম থ্রি-ডি মানচিত্র। ফরাসি বিজ্ঞানীরা এই পাথর নিয়ে ২০১৭ সাল থেকে কাজ করছেন। তাঁরা নিশ্চিত করেছেন এই পাথরে খোদাই করা চিহ্নের বয়স প্রায় ৪০০০ বছর। গবেষণা বলছে এই পাথর সম্ভবত ব্রোঞ্জ যুগের এবং এর বয়স ১৯০০ খ্রিস্টপূর্ব থেকে ১৬৫০ খ্রিস্টপূর্ব।

    সূত্রের খবর অনুযায়ী ১৯০০ সালে এই পাথর প্রথমবার আবিষ্কার করেন ফরাসি প্রত্নতাত্ত্বিক পল দুঁ শাঁতে। পশ্চিম ব্রিটানির ফিনিস্তেরের সমাধিস্থলে খনন করার সময়ে এই পাথরটি পাওয়া যায়। কিন্তু এই পাথরটি শাঁতের বাড়িতে দীর্ঘ দিন অবহেলায় পড়েছিল। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এই পাথরটির বিষয়ে সবাই ভুলে যায়। ১৯২৪ সালে এই পাথর শাঁতের বাড়ি থেকে ফ্রান্সের একটি জাদুঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে এই গুরুত্বপূর্ণ পাথরের ছাঁচ তৈরি করা হয়। কিন্তু এই পাথর নিয়ে কারও কোনও মাথা ব্যথা ছিল না। কারণ এই পাথরের গুরুত্ব সবাই ভুলে গিয়েছিলেন। ২০১৪ সালে এই পাথর পুনরায় আবিষ্কার হয় এবং সবাই নড়েচড়ে বসেন। এত দিন অবহেলায় পড়ে থাকা এই পাথর যে হেলাফেলার বস্তু নয় সেটা বোঝা যায় এবার।

    গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে এই পাথরের উপরে খোদাই করা ৫ ফুট বাই সাড়ে ৬ ফুটের একটি মানচিত্র। এই মানচিত্রে ১৮ কিলোমিটার অঞ্চলকে দেখানো হয়েছে একটি নদীকে কেন্দ্র করে। আশ্চর্যের বিষয় হল এত হাজার বছর আগেও এই অঞ্চল পাথরের উপরে তুলে ধরা হয়েছে ৮০% নিখুঁত গণনা দ্বারা। গবেষকদের দাবি, এই ভাবে পাথরের উপরে মানচিত্র তুলে ধরা নতুন কিছু নয়। তবে এই ভাবে নির্দিষ্ট কোনও অঞ্চলকে প্রায় নিখুঁত ভাবে তুলে ধরার কাজ আগে দেখা যায়নি।

    এই পাথুরে মানচিত্রটি সম্ভবত কোনও নির্দিষ্ট জায়গার মালিকানা চিহ্নিত করতে ব্যবহৃত হয়েছিল। প্রত্নতাত্ত্বিকরা বলেছেন যে সেই সময়ে মানুষের কার্টোগ্রাফিক জ্ঞান কতটা ছিল সেটা অধ্যয়ন করার জন্য এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ হতে পারে।

    Published by:Simli Raha
    First published:

    লেটেস্ট খবর