ট্যাক্সিতে বসে ‘‌জোরে’‌ বাতকর্ম!‌ শেষ পর্যন্ত জরিমানা ও কঠোর শাস্তি হল যাত্রীর

এভাবে একজনের সামনে সশব্দে বাতকর্ম করা খুবই অপমানজনক। সেই সময় জেমস মত্ত ছিলেন।

এভাবে একজনের সামনে সশব্দে বাতকর্ম করা খুবই অপমানজনক। সেই সময় জেমস মত্ত ছিলেন।

  • Share this:

    কিংসউডের নাইট ক্লাবে যাচ্ছিলেন জেমস ম্যালেট। সেই কারণেই তিনি বুক করেছিলেন একটি ক্যাব সংস্থার ট্যাক্সি। সেখানে তিনি বসেছিলেন পিছনের আসনে। এরপরই সেই ক্য়াব ড্রাইভার অভিযোগ করেন, সেদিন যাত্রাপথে অভব্য আচরণ শুরু করেন জেমস। তিনি একাধিকবার জোরে বাতকর্ম করেন গাড়ির মধ্যে। তারপর মদ খেয়ে অভব্য আচরণ শুরু করেন তিনি। তাতেই ক্ষেপে গিয়ে গাড়ি থেকে তাঁকে নামিয়ে দিতে চেয়েছিলেন চালক। তারপর পরিস্থিতি হাতাহাতি পর্যন্ত গড়ায়। যদিও শেষ পর্যন্ত জেমসকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দিয়েছিলেন ওই চালক।

    কিন্তু তারপর ওই ক্যাব সংস্থার কাছে অভিযোগ জমা পড়ে। ঘটনার পর থেকে কাজ হারিয়ে নিজের দেশে ফিরে যান ওই গাড়ির চালক। তারপর বিষয়টি আদালতে ওঠে। আদালতে ঘটনার দায় স্বীকার করে নেন। তারপরই আদালত ঘোষণা করে, জেমসকে মোট ৫০০ ইউরো জরিমানা, ও ১২০ ঘণ্টার বিনা পারিশ্রমিকে কাজ করতে হবে। এটিই তাঁর শাস্তি। এর পাশাপাশি আদালত ক্যাব সংস্থাকে বলে যাতে ওই চালক নিজের কাজ ফিরে পান ও শারীরিক চিকিৎসার সবরকম ব্যবস্থা করা হয়। আদালত জানিয়েছ, জেমস যা করেছিলেন, যা একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। আর সেই কারণেই এই শাস্তি দেওয়া হল। এভাবে একজনের সামনে সশব্দে বাতকর্ম করা খুবই অপমানজনক। সেই সময় জেমস মত্ত ছিলেন। তারপর তিনিই প্রথম ঝামেলা শুরু করেন। ঝামেলার পর মারধরও করেন। মার খেয়ে নিজেকে রক্ষা করতে পাল্টা মার দিতে বাধ্য হন চালক।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: