• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • দোকানেই মরে পড়ে রয়েছে কর্মী, ছাতা দিয়ে দেহ আড়াল করে রমরমিয়ে চলল বেচাকেনা

দোকানেই মরে পড়ে রয়েছে কর্মী, ছাতা দিয়ে দেহ আড়াল করে রমরমিয়ে চলল বেচাকেনা

যেভাবে মৃতদেহকে ছাতা ও কার্ডবোর্ডের আড়ালে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল, সেই ছবি নেট দুনিয়ায় এখন ভাইরাল ৷

যেভাবে মৃতদেহকে ছাতা ও কার্ডবোর্ডের আড়ালে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল, সেই ছবি নেট দুনিয়ায় এখন ভাইরাল ৷

যেভাবে মৃতদেহকে ছাতা ও কার্ডবোর্ডের আড়ালে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল, সেই ছবি নেট দুনিয়ায় এখন ভাইরাল ৷

  • Share this:

    #সাও পাওলো: শকিং, অমানবিক যাই বলা হোক না কেন তবুও এই ঘটনার জন্য কম ৷ কাজ করতে করতেই দোকানে সুপার মার্কেটে মেঝেতে লুটিয়ে পড়লেন এক দোকানেই মৃত্যু এক কর্মীর ৷ এমন মর্মান্তিক ঘটনাতেও একমিনিটের জন্যেও বন্ধ করা যাবে না দোকান ৷ তাই ছাতা ও পড়ে থাকা কার্ডবোর্ড দিয়ে মৃতের দেহ আড়াল করে ওইভাবে সারাদিন চলল সুপারমার্কেটে কেনাকাটি ৷

    মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ব্রাজিলের রেসিফিকের একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে ৷ দোকান চালু রাখতে দেহটি আড়াল করে সহকর্মীরাই ৷ যেভাবে মৃতদেহকে ছাতা ও কার্ডবোর্ডের আড়ালে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল, সেই ছবি নেট দুনিয়ায় এখন ভাইরাল ৷ জানা গিয়েছে, ঘটনাটি অগাস্টের ১৪ তারিখের ৷ প্রায় একসপ্তাহ পর গোটা বিষয়টি জানাজানি হতে তীব্র সমালোচনায় উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া ৷

    ক্যারিফোর ব্রাজিল নামে ওই সুপারমার্কেট বুধবার নেটপাড়ায় ক্ষমা চেয়ে ঘটনার সাফাইয়ে জানিয়েছে, দেহটি আড়াল করা হয়েছিল ছাতা দিয়ে তা সত্যি তবে বাকি ঘটনাটি যা বলা হচ্ছে তা সঠিক নয়৷ মৃত ব্যক্তি ক্যারিফোর ব্রাজিল স্টোরের সেলস ম্যানেজার ছিলেন ৷ ঘটনার দিন তিনি হঠাৎতই কাজ করতে করতে অসুস্থ হয়ে মাটিতে লুটিতে পড়েন ৷ ফার্স্ট এড দেওয়া হলেও অ্যাম্বুলেন্স আসার আগেই মারা যান ওই কর্মী ৷ প্রোটোকল অনুযায়ী পুলিশ আসার আগে বডি সরানো সম্ভব ছিল না তাই দোকানের বাকি স্টাফরাই ছাতা ও কার্ডবোর্ড দিয়ে দেহটি ঢেকে দেয় ৷

    ক্যারিফোর ব্রাজিল কর্তৃপক্ষ ঘটনার জন্য মৃতের পরিবারের কাছে ক্ষমা চেয়েছে এবং যেকোনও সাহায্যে তারা প্রয়াত ব্যক্তির পরিবারের প্রয়োজনে পাশে আছেন বলে আশ্বস্ত করেছে ৷ তবে উল্লেখ্য, এই প্রথম নয়, এর আগেও বিতর্কে বার বার জড়িয়েছে এই সুপার মার্কেটের নাম ৷ ২০১৮ সালে ক্যারিফোর ব্রাজিলের সাও পাওলো শাখায় একটা রাস্তার কুকুরকে রড দিয়ে পিটিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছিল ৷ সেবারও প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিলেন নেটিজেনরা ৷

    Published by:Elina Datta
    First published: