• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • BRAZILIAN NURSE HEROICALLY FIGHTS OFF INTRUDER WHO WAS WATCHING HER DANCE WATCH VIRAL VIDEO TC SR

নার্সের নাচ দেখে উত্তেজিত যুবক, চাইলেন জড়িয়ে ধরতে! উচিৎ শিক্ষার ভিডিও হল ভাইরাল!

লোকটি আচমকাই আরও কাছে এগিয়ে আসে। আর তাঁকে জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করে।

লোকটি আচমকাই আরও কাছে এগিয়ে আসে। আর তাঁকে জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করে।

  • Share this:

#ব্রাজিল: বাড়িতে নিজের ছন্দে নাচছিলেন মহিলা। এমন সময়ে পিছন থেকে ঘরের মধ্যে ঢুকে পড়ল এক অজানা ব্যক্তি। এখানেই শেষ নয়। মহিলার শ্লীলতাহানি করতেও উদ্যত হয় সে। তবে এবার বোধহয় ভুল জায়গায় এসে পড়েছিল ওই দুষ্কৃতী। কারণ মহিলার মারের চোটে রীতিমতো প্রাণ যায়-যায় অবস্থা ওই ব্যক্তির। ঘুষি-লাথিতে কোনও রকমে জীবন নিয়ে পালায় সে। সম্প্রতি ভাইরাল হল সেই ভিডিও।

অ্যাঞ্জেলা গনসালভিস (Angela Goncalves)। ব্রাজিলের পারানাগুয়ার (Paranagua) এই বাসিন্দা পেশায় নার্স। বুধবার নিজের বাড়িতেই নাচের ভিডিও তৈরি করছিলেন তিনি। এমন সময়ে এক অজানা ব্যক্তি পিছন দিয়ে চুপি চুপি এসে কাচের দরজা খুলে ঘরের মধ্যে ঢুকে পড়ে। প্রথমে খানিকটা চমকে যান অ্যাঞ্জেলা। কিন্তু এবার বাড়াবাড়ি শুরু করে ওই ব্যক্তি। Facebook-এ নিজেই পুরো ঘটনার ভিডিওটি শেয়ার করেছেন অ্যাঞ্জেলা। লিখেছেন, নিজের ছন্দে নাচে মেতেছিলেন তিনি। ঘুণাক্ষরেও টের পাননি। এমন সময় পিছন থেকে ঘরের মধ্যে ঢুকে পড়ে ওই ব্যক্তি। দারুণ ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু পরক্ষণেই ভয় না পেয়ে স্বাভাবিক হওয়ার ভান করেন। এদিকে ওই লোকটি আচমকাই আরও কাছে এগিয়ে আসে। আর তাঁকে জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করে। তাই নিজেকে ঠিক রাখতে পারেননি তিনি। ধাক্কা দিয়ে, বলা ভালো লাথি মেরে সোজা ঘরের বাইরে বের করে দেন ওই দৃষ্কৃতীকে। এখানেই শেষ নয়। মারতে মারতে ওই ব্যক্তির পিছু নেন অ্যাঞ্জেলা।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অ্যাঞ্জেলা জানান, বাড়িতে নিজের ১১ বছরের মেয়েকে নিয়ে থাকেন তিনি। হঠাৎ করে অজানা কেউ ঢুকে পড়ায় দারুণ ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন। মাথায় একসঙ্গে হাজার দুশ্চিন্তা ভিড় করে এসেছিল। তাই সাত-পাঁচ না ভেবে ওই ব্যক্তির উপরে চড়াও হন তিনি। নিজের ভিডিওটি পোস্ট করার মাধ্যমে তাঁর বার্তা- যে সব মহিলারা একা বাড়িতে রয়েছেন, যেন সতর্ক থাকেন। সাবধানে থাকেন। এই রকম কোনও ঘটনা ঘটলে তড়িঘড়ি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেন। না হলে বড়সড় ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

Facebook-এ ১.৪ মিলিয়নের বেশি ভিউজ রয়েছে ভিডিওটির। ঘটনায় স্থানীয় পুলিশকে খবর দিয়েছেন পেশায় নার্স অ্যাঞ্জেলা। একটি FIR দায়ের করেছেন তিনি। ওই অনুপ্রবেশকারীর সন্ধানে পাড়া-প্রতিবেশীদের কাছ থেকেও খোঁজ নেন অ্যাঞ্জেলা। কিন্তু পরে আর এলাকায় দেখা যায়নি ওই দুষ্কৃতীকে।

First published: