বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দেড় হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থীকে জাহাজে চাপিয়ে বিচ্ছিন্ন দ্বীপে পাঠিয়ে দিল বাংলাদেশ

দেড় হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থীকে জাহাজে চাপিয়ে বিচ্ছিন্ন দ্বীপে পাঠিয়ে দিল বাংলাদেশ
জাহাজে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের৷ Photo-AP

বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় ৩৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই দ্বীপটিতে প্রায় ১১২ মিলিয়ন ডলার খরচ করে বাড়ি, হাসপাতাল, মসজিদ এবং বাঁধ তৈরি করেছে বাংলাদেশের নৌবাহিনী৷

  • Share this:

#চট্টগ্রাম: মানবাধিকার সংগঠনগুলির আপত্তি সত্ত্বেও দেড় হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থীকে জাহাজে চাপিয়ে বঙ্গোপসাগরের উপরে একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপে পাঠিয়ে দিল বাংলাদেশ সরকার৷ সাতটি ছোট জাহাজে করে শুক্রবার প্রথম দফায় মোট ১৬৪২ জন রোহিঙ্গা শরণার্থীকে ভাসান চর নামে ওই দ্বীপে পাঠানো হয়েছে৷ মাত্র কুড়ি বছর আগে ভেসে ওঠা ওই দ্বীপে এর আগে কোনও জনবসতি গড়ে ওঠেনি৷ ফলে সেখানে রোহিঙ্গাদের না পাঠানোর দাবি জানিয়েছিল বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন৷ কিন্তু সেই আপত্তি শুনল না বাংলাদেশ সরকার৷

বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় ৩৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই দ্বীপটিতে প্রায় ১১২ মিলিয়ন ডলার খরচ করে বাড়ি, হাসপাতাল, মসজিদ এবং বাঁধ তৈরি করেছে বাংলাদেশের নৌবাহিনী৷ আগে বর্ষার মরশুমে এই দ্বীপের একাংশ জলে ডুবে গেলেও বাঁধ তৈরি করায় এখন সেখানে আর এই সমস্যা নেই৷

রোহিঙ্গাদের সঙ্গে যাত্রা করা বাংলাদেশী সাংবাদিক সালহে নোমান জানিয়েছেন, দুপুরে খাওয়ার জন্য রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ভাত, ডিম এবং মুরগির মাংস দেওয়া হয়৷ যাত্রা শুরুর আগে প্রত্যেকের শরীরের তাপমাত্রা মাপার পাশাপাশি তাঁদের ফেস মাস্কও দেওয়া হয়৷ ওই দ্বীপে মোট ১ লক্ষ মানুষের বসবাস করার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ কিন্তু মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রাণের ভয় আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা মুসলিমের সংখ্যাটা কয়েকগুন বেশি৷ মূলত কক্সবাজারের বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরে গাদাগাদি করে থাকছেন তাঁরা৷

রাষ্ট্রপুঞ্জের তরফে বাংলাদেশ সরকারকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল, শুধুমাত্র ইচ্ছুক রোহিঙ্গা শরণার্থীদেরই ওই দ্বীপে নিয়ে যাওয়া হোক৷ যদিও সেই পরামর্শ মানেনি বাংলাদেশ সরকার৷ বরং তাঁদের দাবি, ওই দ্বীপে সব রোহিঙ্গা শরণার্থীই সুরক্ষিত থাকবেন৷ রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধিরা সেখানে গেলে এ বিষয়ে নিশ্চিতও হবেন৷ তবে কবে রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধিদের ওই দ্বীপ পরিদর্শনে নিয়ে যাওয়া হবে তা স্পষ্ট করা হয়নি৷ পাশাপাশি প্রথম দফায় যে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ভাসান দ্বীপে নিয়ে যাওয়া হল, তাঁদের কীসের ভিত্তিতে নির্বাচন করা হল, সে বিষয়েও কিছু জানানো হয়নি৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 5, 2020, 9:57 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर