• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • ASTRONAUT SOICHI NOGUCHI TWEETS IMAGE OF GIZA PYRAMIDS AS SEEN FROM SPACE STATION PB

NASA: মহাকাশ থেকে তোলা, তাও গিজার পিরামিডের ছবি উঠল থার্ড ডাইমেনশনে, অবাক নেটদুনিয়া!

মহাকাশ থেকে তোলা, তাও গিজার পিরামিডের ছবি উঠল থার্ড ডাইমেনশনে, অবাক নেটদুনিয়া!

সফল ভাবে পৃথিবীতে প্রত্যাবর্তনের পর সেই ছবি নিজের সামাজিক নেট মাধ্যম থেকে ছড়িয়ে দিয়েছেন নোগুচি।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: প্রাচীন প্রবাদ, 'চিনের প্রাচীর না কি চাঁদ থেকে যায়।' প্রবাদ মিলল কিয়দংশে। চাঁদ নয়, মহাকাশ থেকে দেখা গেল পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ স্থাপত্যগুলির একটা। তবে চিনের প্রাচীর নয়, বরং জাপানের নভোচারী সোইচি নোগুচির (Soichi Noguchi) ছবিতে ধরা পড়ল, মিশরের গিজার পিরামিড। সফল ভাবে পৃথিবীতে প্রত্যাবর্তনের পর সেই ছবি নিজের সামাজিক নেট মাধ্যম থেকে ছড়িয়ে দিয়েছেন নোগুচি। যা নিয়ে আলোড়ন পড়ে গিয়েছে।

পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সাতটি বিস্ময়ের একটি হল গিজার পিরামিড (Giza Necropolis)। নোগুচির মহাকাশ থেকে তোলা সেই ছবিতে উঠে এসেছে এই আশ্চর্যের ছবিই। যে ছবি নিয়ে কার্যত হুলস্থুল পড়ে গিয়েছে বিভিন্ন মহলে। এই ছবিতে পিরামিডকে দেখা যাচ্ছে তার আশেপাশের বিস্তীর্ণ বালুকাময় মরুভূমির মাঝে। উল্লেখযোগ্য, এই ছবিটি তোলা হয়েছে, মে মাসের পয়লা তারিখে। সে দিনই ছিল নোগুচির মহাকাশে শেষদিন। মে মাসের দ্বিতীয় তারিখেই, নোগুচি তাঁর টিম নিয়ে রওনা দেন পৃথিবীর উদ্দেশ্যে।

ছবিটি সামনে আসতেই তা নিয়ে বেশ আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। অজস্র মন্তব্যে ভেসে গিয়েছে ছবিটি। উল্লেখযোগ্য এই যে এই ছবিতে মহাকাশ থেকে তোলা পৃথিবীর চিরাচরিত সবুজ-নীল গোলক কাঠামো অনুপস্থিত। বরং এই ছবিতে রয়েছে কিছুটা থার্ড ডাইমেনশনের প্রভাব। ছবিতে গিজার পিরামিডকে দেখা গিয়েছে একটি থার্ড ডাইমেনশনাল কাঠামোয়। যা উল্লেখ করতে ভোলেননি, এক দর্শক। এই ছবিটি কেবমাত্র নোগুচির নেট মাধ্যমেই নয়, NASAর অফিসিয়াল Twitter হ্যান্ডেল থেকেও ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ছবি আসার সঙ্গেই সঙ্গেই বিভিন্ন মানুষের অভিবাদন বার্তায় ভরে যায়, এই ছবি। অনেকেই নোগুচির সফলভাবে প্রত্যাবর্তন চেয়ে মন্তব্য করেছিলেন।

আমেরিকার পানামা শহরের পূর্ব উপকূলে সফলভাবে ল্যান্ড করে মহাকাশযান 'স্পেসএক্স ক্রিউ ড্রাগন (SpaceX Crew Dragon)। এই মহাকাশযানেই ছিলেন নোগুচি ও তাঁর বাকি সহকর্মীরা। বাকি সহকর্মীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য নাম শ্যানন ওয়াকার (Shannon Walker), ভিক্টর গ্লোভার (Victor Glover) এবং মাইক হপকিন্স (Mike Hopkins)। এঁরা প্রত্যেকেই সম্ভবত NASA-র বিজ্ঞানী। নোগুচি এই টিমের একমাত্র সদস্য যিনি জাপানিজ এয়ারোস্পেজ এক্সপ্লোরেশন এজেন্সি বা জাক্সা (Jaxa)-র সদস্য। মোট ১৬৮ দিন তাঁরা মহাকাশে ছিলেন। এর মধ্যে ১৬৭ দিন ছিলেন মহাকাশ স্টেশনে। মোট ১১,৪৬,৫৩,২০৫ কিমি দূরত্ব অতিক্রম করেছ তাঁদের মহাকাশযান। নাসার এই টিম আমেরিকার ফ্লোরিডায় এর আগে নিজস্ব একটি যান তৈরিও করেছিল। এই মহাকাশযানের নাম ছিল 'স্পেসএক্স ক্রিউ ১ (SpaceX Crew 1)।'

Published by:Piya Banerjee
First published: