ড্যানিয়েল পার্ল হত্যাকাণ্ডের রায়ে ক্ষুব্ধ আমেরিকা, পাকিস্তানকে চাপ বাইডেন প্রশাসনের

ড্যানিয়েল পার্ল হত্যাকাণ্ডের রায়ে ক্ষুব্ধ আমেরিকা, পাকিস্তানকে চাপ বাইডেন প্রশাসনের
আহমেদ ওমর সৈয়দ শেখকে বেকসুর খালাস করেছে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট photo/wall street journal

ক্ষোভের আগুনে ফুঁসছে আমেরিকা। ড্যানিয়েলের পরিবার এই রায় নিয়ে মার্কিন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ দাবি করেছে। তাঁরা জানিয়েছে এই রায় বহাল থাকলে ভবিষ্যতে এমন অপহরণ এবং খুন আবারও হতে পারে।

  • Share this:

    #করাচি: আজ থেকে প্রায় কুড়ি বছর আগের এই ঘটনার বীভৎসতায় চমকে গিয়েছিল বিশ্ব। আমেরিকার দ্য ওয়াল স্ট্রিট(The Wall Street Journal) জার্নালের দক্ষিণ এশিয়ার ব্যুরো প্রধান ড্যানিয়েল পার্লকে (Daniel Pearl) গলা কেটে খুন করেছিল জঙ্গিরা। পরে সেই ভিডিও পাঠানো হয়েছিল মার্কিন দূতাবাসে। পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই এবং বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠন কীভাবে কাজ করে, এই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত ভিত্তিক খবর করছিলেন পার্ল। পাকিস্তানের বাণিজ্যিক রাজধানী করাচির রাস্তা থেকে দিনের বেলায় অপহরণ করা হয়েছিল তাঁকে। কিছুদিন বন্দী রাখার পর অবশেষে শিরশ্ছেদ করা হয়। মূল অভিযুক্ত আহমেদ ওমর সৈয়দ শেখকে (Ahmed Omar Saeed Sheikh) প্রথমে পাকিস্তানের একটি নিম্ন আদালত প্রাণদণ্ড দিয়েছিল। পরে তা সাত বছরের কারাদণ্ডে রূপান্তরিত করা হয়।

    একদিন আগে সেই জঙ্গি নেতাকে বেকসুর খালাস করেছে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট (Supreme court of Pakistan)। যদিও সিন্ধু প্রদেশের আদালত জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের এই রায়ের বিরুদ্ধে তাঁরা রিভিউ পিটিশন দেবে। ক্ষোভের আগুনে ফুঁসছে আমেরিকা। ড্যানিয়েলের পরিবার এই রায় নিয়ে মার্কিন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ দাবি করেছে। তাঁরা জানিয়েছে এই রায় বহাল থাকলে ভবিষ্যতে এমন অপহরণ এবং খুন আবারও হতে পারে। দোষীদের মৃত্যুদণ্ড ছাড়া কোনও শাস্তি যথেষ্ট নয় মনে করেন তাঁরা। জো বাইডেনের প্রধান মুখপাত্র জেন সাকি এক বিবৃতিতে পাকিস্তান সরকারের প্রতি এই রায়ের বিকল্প আইনি বিষয়গুলো পর্যালোচনার আহ্বান জানিয়েছেন। সঠিকভাবে বিচারের আর্জি জানানো হয়েছে। ওমর সৈয়দ শেখকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে আগেই বিচারের প্রক্রিয়া চালাতে চেয়েছিল আমেরিকা। কিন্তু পাকিস্তান রাজি হয়নি। আমেরিকা বুঝিয়ে দিয়েছে এই রায় মানছে না তাঁরা। লোক দেখানো এই রায় পরিবর্তন করতে হবে আকারে-ইঙ্গিতে পরিষ্কার করে দিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। এই ঘটনা থেকেই পরিষ্কার জঙ্গিদের সঙ্গে পাকিস্তানের যোগ।

    পাকিস্তানের যে সরকারই আসুক, আইএসআইএর তৈরি করে দেওয়া এই পথ তাঁরা অস্বীকার করতে পারবেন না। নিন্দুকেরা বলেন অন্যান্য দেশে সরকার এবং মানুষের জন্য চলা রাষ্ট্রের একটি সেনাবাহিনী আছে। পাকিস্তানের ক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর একটি দেশ আছে। সেখানে সেনাবাহিনীর মুখের ওপর কথা বলার সাহস স্বয়ং সরকারের নেই। শেখের বাকি তিন সহযোগীকেও যাবজ্জীবন দেওয়া হয়।


    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: