বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

তিন দশক আগে স্ত্রীকে খুন করে দেহ লোপাট, অনুশোচনায় দায় স্বীকার করল স্বামী..

তিন দশক আগে স্ত্রীকে খুন করে দেহ লোপাট, অনুশোচনায় দায় স্বীকার করল স্বামী..
প্রতীকী চিত্র।

তিরিশ বছর পর স্ত্রীকে হত্যার দায় স্বীকার করলেন স্বামী।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: ১৯৮৩ সালে খুন করেছিলেন। মামলায় জড়িয়ে পড়েন তার কুড়ি বছর পরে অর্থাৎ ২০০৯ সালে। অনুশোচনা শুরু হতে সময় লাগল আরও এক দশক। হ্যাঁ, তিরিশ বছর পর স্ত্রীকে হত্যার দায় স্বীকার করলেন স্বামী।

মার্কিন মুলুকের বাসিন্দা জো রডরিগেজ ক্রুজের বর্তমান বয়েস ৫৫। ১৯৮৯ সালে তাঁর তৎকালীন স্ত্রী মারতা রডরিগেজকে শেষবার দেখা যায়। এই নার্স ভদ্রমহিলাকে খুনের দায় কখনও স্বীকার করেনি রডরিগেজ। ওয়াশিংটন এবং ভার্জিনিয়া জুড়ে দশকের পর দশক ধরে চলে তল্লাশি, জেরা। ১৯৯১ সালে তাঁর অস্থি পাওয়া যায়, সেই অস্থিকে শনাক্ত করতে লেগে যায় ২০১৮ সাল পর্যন্ত সময়।

পুলিশ সূত্রে খবর, রডরিগেজ তার প্রথম স্ত্রীকে খুন করেই হাত ধুয়ে ফেলেননি। প্রথম স্ত্রীর মৃত্যু হতে পামেলা বাটলার বলে এক মহিলার সঙ্গে তিনি আলাপিত হন। জমে ওঠে প্রণয়। ২০০৯ সাল থেকে তাঁরও আর খোঁজ পাওয়া যায়নি।

২০১৭ সালে রডরিগেজকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ তাকে আশ্বস্ত করে জানায় পামেলার দেহ খুঁজতে সাহায্য করলে তাঁর শাস্তির পরিমাণ কমতে পারে। এদিকে রডরিগেজের প্রথমা স্ত্রীর ডিএনএ টেস্ট করে ওই খোঁজ পাওয়া অস্থি সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে যায় পুলিশ। পামেলার দেহ সন্ধানে গিয়ে অবশ্য খালি হাতেই ফিরতে হয় পুলিশকে। স্ট্যাফর্ডে রাস্তা নির্মাণের কাজে খোঁড়াখুড়ির জন্য লোপাট হয় সমস্ত তথ্য প্রমাণ। তবে দোষ কবুল করে নেন বৃদ্ধ রডরিগেজ।

Published by: Arka Deb
First published: November 17, 2020, 10:44 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर