• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • AFGHAN WOMAN WHO WAS SHOT AND STABBED BY TALIBANS IN AFGHANISTAN SHARE SCARY MEMORY SWD

Afghan Women: 'ওরা মহিলাদের দেহাংশ পশুকে খাওয়ায়'! ভয়ানক স্মৃতি শোনালেন তালিবানদের হাতে ৮টি গুলি খাওয়া খাতেরা

Taliban in afghanistan: তালিবানদের হাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। খাতেরার শরীরের উর্ধাংশে আটটি গুলি করেছিল তালিবানরা। সারা শরীর ছুরি দিয়ে ক্ষতবিক্ষত করেছিল।

Taliban in afghanistan: তালিবানদের হাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। খাতেরার শরীরের উর্ধাংশে আটটি গুলি করেছিল তালিবানরা। সারা শরীর ছুরি দিয়ে ক্ষতবিক্ষত করেছিল।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: তালিবানদের দখলে আফগানিস্তান (Taliban tookover Afghanistan)। শুধুমাত্র প্রাণে বাঁচার আশায় দেশ ছেড়ে পালাচ্ছে নাগরিকরা। এর মধ্যেই অত্যাচারের রোমহর্ষক স্মৃতি তুলে ধরলেন খাতেরা (Khatera) এক মহিলা। খাতেরা বর্তমানে দিল্লির বাসিন্দা। গত বছর আফগানিস্তানের গজনি প্রদেশে তালিবানদের হাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। খাতেরার শরীরের উর্ধাংশে আটটি গুলি করেছিল তালিবানরা। সারা শরীর ছুরি দিয়ে ক্ষতবিক্ষত করেছিল। এমনকি চোখের মধ্যেও গেঁথে দিয়েছিল ছুরি। এমন ক্ষতবিক্ষত অবস্থাতে মহিলাকে রাস্তার মাঝেই ছেড়ে এসেছিল তালিবানরা, যাতে সেখানেই তার মৃত্যু হয়। সেই সময়ে খাতেরা ছিলেন গর্ভবতী।

    আরও ভয়ানক বিষয় হলো খাতেরার উপরে এই হামলার মূল ষড়যন্ত্রী নিজের বাবা। মহিলার বাবাও ছিল তালিবানি। সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন খাতেরা। তিনি বলছেন, "ওরা প্রথমে আমাদের মহিলাদের উপর অত্যাচার করে। আমাদের দেহগুলিকে শাস্তির নমুনা হিসেবে দেখায়। কখনও মহিলাদের শরীরের অংশ কুকুরকেও খাইয়েছে তালিবানরা। আমার ভাগ্য ভালো ছিল তাই বেঁচে গিয়েছি। তালিবানদের শাসনে বাঁচা মানে মহিলা, শিশু ও সংখ্যালঘুদের নরকবাস।"

    তালিবানদের নির্মমতা তুলে ধরতে খাতেরা বলছেন, "এরা শুধু মহিলাদের খুন করে না। তার পরে দেহাংশ পশুদের খাওয়ায়। এরা ইসলামের কলঙ্ক।" এই মুহূর্তে চিকিৎসার জন্য ভারতে রয়েছেন তিনি। সঙ্গে রয়েছেন তাঁর স্বামী ও ২ মাসের সন্তান। খাতেরা মনে করেন ভাগ্য ভালো ছিল বলে বেঁচে গিয়েছেন এবং টাকা ছিল বলে চিকিৎসা করাতে পেরেছেন।

    খাতেরা বলছেন, "সবার ভাগ্য এমন হয় না। তালিবানদের শাসন যারা অমান্য করে রাস্তায় নৃশংসভাবে তাদের মৃত্যু হয়।" আর তাই এই মুহূর্তে আফগানিস্তানের অবস্থা দেখে শঙ্কিত তিনি। বিশেষ করে, তালিবানদের দখলে গোটা দেশ চলে যাওয়ায় মহিলাদের নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন তিনি। খাতেরা বলছেন, "তালিবানদের চোখে মহিলারা মানুষ নয়। মহিলার শুধুই মাংস।"

    নৃশংসতার কথা বলতে গিয়ে তিনি বলছেন, "তালিবানরা পুরুষ ডাক্তারদের কাছে মহিলাদের যেতে দেয় না। আবার মহিলাদের পড়াশোনা করতে দেয় না। তাহলে মহিলাদের জন্য বেঁচে রইল কী শুধু মৃত্যু ছাড়া? যদি আপনি ভেবেও থাকেন আমরা শুধুই জন্ম দেওয়ার মেশিন, তাও বলব মহিলাদের জন্য ওদের শুধুই ঘৃণা রয়েছে। চিকিৎসার সাহায্য ছাড়া মহিলারা কী ভাবে জন্ম দেবে।"

    ২০ বছর পর আধিপত্য তৈরি করল তালিবানরা। ভারত যেদিন স্বাধীনতা উদযাপন করছে, সেদিনই গোটা আফগানিস্তান স্বাধীনতা হারালো। আর তাই দিল্লিতে বসে খাতেরা বলছেন, ২০ বছর ধরে বহু স্বপ্ন দেখেছিল আফগান মানুষ যা ধ্বংস হয়ে গেল।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: