৪ দিন কেটে গেলেও ফেরেনি জ্ঞান, শ্যামপুর থানার আহত ওসি-কে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jan 11, 2018 09:39 AM IST
৪ দিন কেটে গেলেও ফেরেনি জ্ঞান, শ্যামপুর থানার আহত ওসি-কে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jan 11, 2018 09:39 AM IST

 #কলকাতা: হাওড়ার শ্যামপুর থানার ওসি সুমন দাসের শারীরিক অবস্থা এখনও সঙ্কটজনক। বুধবার মিন্টোপার্কের বেসরকারি হাসপাতাল থেকে তাঁকে মল্লিকবাজারের ইনস্টিটিউট অফ নিউরো সায়েন্সে স্থানান্তর করা হয়েছে। ITU-1-এ রাখা হয়েছে তাঁকে। এখানে নার্ভাস সিস্টেমে আঘাতের চিকিৎসা হবে।

এখনও আচ্ছন্ন অবস্থায় রয়েছেন আহত সুমন দাস। জ্ঞান ফিরলেই ছটফট করছেন। তাই ঘুম পাড়িয়ে রাখা হচ্ছে। শারীরিক অবস্থার উপর নজর রাখতে চার সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। তাঁর মধ্যে রয়েছেন বিশিষ্ঠ নিউরো বিশেষজ্ঞ রবিন সেনগুপ্ত ও চিকিৎসক জন ভ্যাসিলাউডিস। বুধবার সুমন দাসের সিটি স্ক্যান হয়। অ্যাঞ্জিওগ্রামও করা হবে। আগের দুই নার্সিংহোমের মেডিক্যাল রিপোর্ট খতিয়ে দেখছেন চিকিৎসকরা।

শুক্রবার গভীর রাতে দুষ্কৃতিদের বিরুদ্ধে অভিযানের সময় গুরুতরভাবে আহত হন শ্যামপুর থানার ওসি সুমন দাস ৷ জমি নিয়ে দুই প্রতিবেশীর বিবাদ। মাস ছয়েক আগে মারপিট বাধে হাওড়ার শ্যামপুরের বারগ্রামের বাসিন্দা মোতিয়ার মুনসি ও হানিফ মুনসির পরিবারের মধ্যে। ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের উপরেও হামলা চালায় মোতিয়ার মুনসির দলবল। শুক্রবার রাতে এলাকায় দুষ্কৃতীদের ঢোকার খবর পেয়ে গ্রামে যান ওসি সুমন দাস। সঙ্গে ছিলেন এক এসআই ও অন্যান্য পুলিশকর্মীরাও। আচমকা বোমাবাজি শুরু করে দুষ্কৃতীরা। পুলিসকর্মীদের ঘিরে ফেলে মোতিয়ার মুনসির দলবল। লাঠি, বাঁশ, রড ও টাঙি নিয়ে চলে আক্রমণ। মাথার পিছনে গুরুতর চোট পান ওসি সুমন দাস।

First published: 09:39:28 AM Jan 11, 2018
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर