Football World Cup 2018

পরপর কন্যা সন্তান হওয়ার অপরাধে গৃহবধূকে খুনের চেষ্টা, শ্বশুরবাড়ি ঘিরে এলাকাবাসীদের বিক্ষোভ

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Nov 23, 2017 02:44 PM IST
পরপর কন্যা সন্তান হওয়ার অপরাধে গৃহবধূকে খুনের চেষ্টা, শ্বশুরবাড়ি ঘিরে এলাকাবাসীদের বিক্ষোভ
Representative Image
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Nov 23, 2017 02:44 PM IST

 #দুর্গাপুর : কেন্দ্র এবং রাজ্য, দুই সরকারেরই প্রকল্প আছে "বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও” ও "কন্যাশ্রী ” । অনেকাংশে তা সফল হলেও সর্বত্র যে এর আলো পৌঁছায়নি, তার আবারও প্রমাণ মিলল । শুধুমাত্র কন্যা সন্তান হবার অপরাধে গৃহবধুকে হত্যা করার চেষ্টা, কপালগুণে প্রাণে বাঁচলেন ওই গৃহবধু । অন্ডাল থানার উখড়া কাঁকড়ডাঙ্গার ঘটনা ।

২০১০ সালে ঝাড়খন্ডের গিরিডির রাজধানোয়ার বাসিন্দা সীমাদেবীর সাথে বিয়ে হয়েছিল উখড়ার কাঁকরডাঙ্গার বাসিন্দা ওমপ্রকাশ সাউয়ের । বিয়ের পর প্রথমে একটি পুত্রসন্তান হলেও দুর্ভাগ্যজনক ভাবে সে মারা যায় । এরপর দুটি কন্যাসন্তান হয় ওই দম্পতির । অভিযোগ, এরপর থেকেই সীমার ওপর অত্যাচার শুরু হয় । প্রায়শই মারধর চলতে থাকে । এর পাশাপাশি বাপের বাড়ি থেকে পণ বাবদ টাকা আনার জন্য চাপ দেওয়া হতে থাকে ।

অত্যাচার চরমে ওঠে বুধবার । স্বামী ওমপ্রকাশ, দেওর ছোটু ও শাশুরি যশোদা দেবী ব্যাপক মারধর করে সীমাকে । গলায় ফাঁস লাগিয়ে হত্যারও চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ । সীমা অচৈতন্য হয়ে পড়লে মারা গেছে ভেবে তাকে উখড়া ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয় । কিন্তু কপালজোরে বেঁচে যান এই গৃহবধূ ।

বৃহস্পতিবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হতেই বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে এলাকাবাসীরা । খবর দেওয়া হয় উখড়া ফাঁড়ির পুলিশকে । পুলিশ এসে শাশুড়ি যশোদা দেবি ও দেওর ছোটুকে আটক করলেও স্বামী ওমপ্রকাশ পলাতক ।

উখড়া পঞ্চায়েতের সদস্যা সাগরা বিবির অভিযোগ, এর আগেও বাক্সে বন্ধ করে ওই গৃহবধূকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছিল শ্বশুরবাড়ির লোকজন । সেবারেও সময়মত প্রতিবেশীরা জেনে যাওয়ায় প্রাণে বেঁচে যায় সীমা । পঞ্চায়েত সদস্যা নিজে উদ্যোগ নিয়ে বেশ কয়েকবার সীমার স্বামী শাশুড়িকে বোঝানোর চেষ্টা করেছিল বলে জানা গিয়েছে ৷ তাতে কোনও কাজ হয়নি, বরং বেড়েছে অত্যাচারের মাত্রা । খবর দেওয়া হয়েছে সীমার বাপের বাড়ীর লোককে ।

গুরুতর অসুস্থ সীমা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের বেডে শুয়ে শোনালেন তাঁর অত্যাচারের করুন কাহিনী । তবে সব কিছু কে ছাপিয়ে গেল তাঁর করুন আর্তি, " মেয়ে হয়েছে বলে মেরে ফেলবে ” ? ইন্ডিয়া “ডিজিটাল” এর পথে এগোলেও মানসিকতা যে এখন ও প্রাগৈতিহাসিক যুগেই অবস্থান করছে, উখড়ার সীমা তার জলন্ত উদাহরণ ।

First published: 02:44:09 PM Nov 23, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर