বীভৎস! প্রসবের সময় নার্সের হ্যাঁচকা টানে মাথা থেকে শিশুর দেহ ছিঁড়ে বেরিয়ে এল হাতে

News18 Bangla
Updated:Jan 11, 2019 08:59 PM IST
বীভৎস! প্রসবের সময় নার্সের হ্যাঁচকা টানে মাথা থেকে শিশুর দেহ ছিঁড়ে বেরিয়ে এল হাতে
Photo : pixabay
News18 Bangla
Updated:Jan 11, 2019 08:59 PM IST

#রামগড়: বীভৎস কাণ্ড বললেও কম বলা হয়! সরকারি হাসপাতালের এক নার্সের অসতর্কতায় এমনটাও যে ঘটতে পারে রাজস্থানের জয়সলমীরের রামগড় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এই মারাত্মক খবরটি সামনে না এলে জানা যেত না ৷ কিন্তু ঠিক কী কাণ্ড ঘটেছিল ?

সন্তান প্রসবের জন্য হাসপাতাল ভর্তি করা হয় এক মহিলাকে ৷ আর সেখানেই সন্তান প্রসব করাতে গিয়ে এতটাই জোরে সন্তানের দেহ ধরে টান দেন এক নার্স যে শিশুর মাথা ছিঁড়ে মায়ের গর্ভে রয়ে যায়।

জানা গিয়েছে, সন্তান প্রসবে একটু অসুবিধে ছিল ৷ তবে এক অমৃত লাল নামে এক পুরুষ নার্স এবং তাঁর সাহায্যকারী ঝুজহার সিং-এর বেপরোয়া মনোভাবে এই মারাত্মক কাণ্ড ঘটল ৷ আরও অভিযোগ, এই এই ঘটনাটি নাকি এক্কেবারে চেপে যান তাঁরা ৷ চুপিচুপি নবজাতকের দেহ মর্গে রেখে আসা হয় ৷ অন্যদিকে, ওই মহিলার পরিবারকে জানিয়ে দেওয়া হয়, ওই মহিলাকে জোধপুরে নিয়ে যেতে হবে।

মহিলাকে জোধপুরের উমেদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ৷ এদিকে, উমেদ হাসপাতালের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, ওই মহিলার প্রসব করানো হয়েছে কিন্তু গর্ভে প্লাসেন্টা রয়ে গিয়েছে। মহিলার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁর দেহে অস্ত্রোপচার করেন উমেদ হাসাপাতালের চিকত্সকরা। তখনই বেরিয়ে পড়ে আসল সত্য। দেখা যায় মহিলার গর্ভে রয়ে গিয়েছে শিশুর মাথা।

এই ঘটনা সামনে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় ৷ মহিলার পরিবারের তরফে রামগড় হাসাপাতালের নার্স ও কর্মীদের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ৷ যদিও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি ৷ আশঙ্কাজনক অবস্থায় এখন উমেদ হাসপাতালে ভর্তি প্রসূতি।

First published: 08:59:19 PM Jan 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर