ছিয়ানব্বই বছরে ‘জেন নেক্সট’ ডার্বি

রবিবাসরীয় সল্টলেকে এই আই লিগের ডার্বি আক্ষরিক অর্থেই ‘গ্লোবাল’।

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Dec 01, 2017 02:28 PM IST
ছিয়ানব্বই বছরে ‘জেন নেক্সট’ ডার্বি
Representational Image
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Dec 01, 2017 02:28 PM IST

#কলকাতা: উন্নয়শীল। নয়ের দশকের গোড়ায় এই কথা বেশ উঠেছিল। অর্থনীতির সূচকে মাপা হত এ দেশের পরিকাঠামোকে। গেল বিশ্বকাপের পর সেই কথাই যেন ঘুরে ফিরে এল। জানা নেই ফিফা প্রেসিডেন্ট মনমোহন সিংয়ের অর্থনীতির পাঠ নিয়ে এ দেশে এসেছিলেন কী-না, তবে ভারত ফুটবলে উন্নয়শীল দেশ এই কথাটার মধ্যে অবশ্য ভুল কিছু নেই। জিয়ানি ইনফ্যান্তিনোর এই কথার রেশ ধরে বলা যেতে পারে রবিবাসরীয় সল্টলেকে এই আই লিগের ডার্বি আক্ষরিক অর্থেই ‘গ্লোবাল’। শুরু সেই মোহনবাগান থেকে।

গত ছিয়ানব্বই বছর ময়দানে ঘটি-বাঙালের লড়াই চলছে। কিন্তু এ বারের বড় ম্যাচ তিনটি দিক থেকে ভিন্ন। এক, নেটিজেনদের বাংলার ফুটবলে আগ্রহ বাড়াতে অন-লাইনে টিকিট বিক্রি। যাতে এখনও পর্যন্ত সফল বাগান কর্তারা। কারণ, তাঁরা বুঝেছেন ৬৬ হাজারের যুবভারতী ভরাতে হলে প্রযুক্তিই একমাত্র হাতিয়ার। দেবাশিস দত্ত, সৃঞ্জয় বসুরা খুব ঠান্ডা মাথায় সেই জায়গাটিকেই টোকা দিয়েছেন। সঙ্গে সৌজন্য হিসেবে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সদস্যদের জন্য ফ্রি-টিকিটের ব্যবস্থা। যা ময়দানি সৌজন্যের নয়া দিশা হতে পারে। বলা যেতে পারে ফিফা প্রেসিডেন্টের উন্নয়নশীল কথার পিছনের আসল পাঠ খুব দ্রুত পড়তে পেরেছেন সবুজ-মেরুন কর্তারা। দুই, বিশ্বকাপের ফাইনালের মাঠে বড় ম্যাচ। আর তিন, সাহেবদের দেখানো রাস্তায় ডার্বির নিরাপত্তা। যা চ্যালেঞ্জ বিধাননগর পুলিশের কাছে।

ইতিমধ্যে বিধিনিষেধ টানা হয়ে গিয়েছে। বাঙালির আবেগের ম্যাচে কী করতে হবে আর কী করতে হবে না, তা জানিয়ে দিয়েছে প্রশাসন। এবার বল পড়ার অপেক্ষা। ‘গ্লোবাল’ ডার্বিতে ম্যাচে কী তার প্রতিফলন থাকবে ? উত্তর হয়তো পাওয়া যাবে ৩ ডিসেম্বর ৯০ মিনিট পর।

প্রতিবেদন: সুমন্ত্র মুখোপাধ্যায়

First published: 02:28:18 PM Dec 01, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर