বিশ্ব ডিম দিবস: ডিমে অ্যালার্জি কাটিয়ে উঠুন এভাবে

News18 Bangla
Updated:Oct 12, 2018 04:34 PM IST
বিশ্ব ডিম দিবস: ডিমে অ্যালার্জি কাটিয়ে উঠুন এভাবে
photo: collected
News18 Bangla
Updated:Oct 12, 2018 04:34 PM IST

#কলকাতা: সবচেয়ে পুষ্টিকর খাবারগুলোর নাম করলে ডিমের নাম আসে সবার উপরে৷ তবে এই ডিমে অ্যালার্জিতে ভোগার সমস্যাও বেশ প্রবল৷ আজ বিশ্ব ডিম দিবসে জেনে নিন ডিমের অ্যালার্জি কাটিয়ে উঠতে কী করতে বলছেন চিকিত্সকরা৷

সাধারণত বাচ্চাদের ডিমের অ্যালার্জি ধরা পড়ে ১ বছর বয়স থেকেই এবং অনেক সময়ই ৪ বছর বয়সের মধ্যে আপনাআপনি ঠিক হয়ে যায়৷ এদিকে অনেক সময়ই অ্যালার্জির কারণে বাবা, মায়েরা ডিম দিতে ভয় পান৷ ফলে ডিমের পুষ্টি থেকে বঞ্চিত থেকে যায় শিশুরা৷

ছোটবেলা অ্যালার্জি হয়েছিল সেই ভয়ে বড় হয়েও অনেকে ডিম এড়িয়ে চলেন৷ চিকিত্সকরা জানাচ্ছেন বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ডিমের সাদা অংশে থাকা প্রোটিন থেকে অ্যালার্জি হয়, খুব কম ক্ষেত্রেই কুসুম থেকে অ্যালার্জি হয়৷ চিকিত্সকের পরামর্শ নিয়ে সহজেই অ্যালার্জি কাটিয়ে উঠতে পারেন৷

Photo: collected Photo: collected

বাচ্চাদের ডিমের অ্যালার্জি কাটানোর জন্য ধীরে ধীরে সহ্যশক্তি বাড়াতে হবে৷ তার জন্য প্রথমেই একসঙ্গে বেশি ডিম না দিয়ে অল্প অল্প করে ডিম দিয়ে দেখতে হবে সহ্য করতে পারছে কিনা বাচ্চা৷ বড়রাও ঠিক একই ভাবে চেষ্টা করে দেখতে পারেন৷

Loading...

এক্ষেত্রে চিকিত্সকরা বলে থাকেন, বেকড ডিম দিয়ে শুরু করতে৷ কারণ ডিম বেক করলে তার মধ্যে থাকা অ্যালারজেন, যা অ্যালার্জির প্রধান কারণ তা কমজোরি হয়ে পড়ে৷

প্রথমে কয়েক মাস ধরে ১টা করে ডিম দিয়ে বেক করা কেক বাচ্চাকে দিয়ে দেখুন৷ গবেষকরা বলছেন, সাধারণত ৬ মাসের মধ্যে শিশুদের ডিমের প্রতি সহ্যশক্তি তৈরি হয়ে যায়৷ যদি দেখেন সামান্য পরিমাণ ডিম শরীরে গেলেও শিশুর একজিমা বা ত্বকের অন্য কোনও সমস্যা দেখা দিচ্ছে, তাহলে ডিম দেওয়া বন্ধ করে দিন৷

First published: 04:33:23 PM Oct 12, 2018
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर