Home /News /hooghly /
Hooghly: 'জলস্বপ্ন' প্রকল্পের জল এখনও স্বপ্ন!

Hooghly: 'জলস্বপ্ন' প্রকল্পের জল এখনও স্বপ্ন!

পঞ্চায়েত প্রধানকে ঘিরে বিক্ষোভ স্থানীয় বাসিন্দাদের

পঞ্চায়েত প্রধানকে ঘিরে বিক্ষোভ স্থানীয় বাসিন্দাদের

'জলস্বপ্ন' প্রকল্পে জলের লাইন লাগানো হয়েছে কিন্তু জলের দেখা নেই দীর্ঘদিন। জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতর ও পঞ্চায়েতের উদাসীনতায় মাস তিনেক ধরে জলের সমস্যায় ভুগছেন আরামবাগের গৌড়হাটি পঞ্চায়েতের অন্তর্গত চারটি গ্রামের মানুষ।

  • Share this:

    হুগলি: 'জলস্বপ্ন' প্রকল্পে জলের লাইন লাগানো হয়েছে কিন্তু জলের দেখা নেই দীর্ঘদিন। জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতর ও পঞ্চায়েতের উদাসীনতায় মাস তিনেক ধরে জলের সমস্যায় ভুগছেন আরামবাগের গৌড়হাটি পঞ্চায়েতের অন্তর্গত চারটি গ্রামের মানুষ। সমস্যার সুরাহা না মেলায় মঙ্গলবার সকালে গৌড়হাটি - ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতে বিক্ষোভ দেখান সংশ্লিষ্ট হেলারচক, তাতারচক, বেউর ও রতনপুর গ্রামের মানুষ। স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই পাইপলাইনে শুরুর দিকে যে সমস্ত বাড়ি রয়েছে সেখানে খুব সরু হয়ে জল পড়লেও, গ্রামের ভেতরের দিকের বাড়িগুলোতে একদমই জল গিয়ে পৌঁছায় না। সেখানকার মানুষদের জলের জন্য এক মাত্র ভরসা সেচের জন্য ব্যবহৃত গভীর নলকূপ। কিংবা কোনও ব্যাক্তির নিজস্ব নলকূপের জল। স্থানীয় এক মহিলা ঝর্না হাজরা বলেন, তার বাড়িতে দীর্ঘ তিন মাস ধরে জল আসছে না। জলের জন্য কয়েক কিলোমিটার হেঁটে অন্য একজনের বাড়ির নিজস্ব নলকূপ থেকে জল নিয়ে যেতে হয়। তার বাড়িতে জলস্বপ্ন প্রকল্পের জলের লাইন থাকলেও তাতে এক সুতোও জল এসে পৌঁছায় না। এ বিষয়ে পঞ্চায়েতের প্রধান চন্দনা ঘোষ বলেন, বিষয়টি জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরকে জানানো হয়েছে, সেখান থেকে নতুন দুটি পাম্প বসানোর জন্য দুটি পৃথক জায়গা পঞ্চায়েতকে দেখতে বলা হয়েছে। ইতিমধ্যেই পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে বেউড় গ্রাম সংলগ্ন এলাকায় একটি জায়গা দেখা হয়েছে। হেলারচক গ্রামেও একটি জায়গা দেখা হয়ে গেছে। আমরা আমাদের দিক থেকে চেষ্টা করছি। জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দফতর সুত্রের খবর, কাপসিট গ্রামীণ জল সরবরাহ প্রকল্পটি দু'হাজার কুড়ি সালের গোড়ায় চালু হয়৷ এই প্রকল্পের আওতায় মোট নয়টি মৌজায় সারা দিনে তিন দফায় জল সরবরাহের কথা ছিল। অনেক বাড়িতে সংযোগ ছিল না৷ কিন্তু এখন সেটিকে জলস্বপ্ন প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসার পর বাড়ি বাড়ি জল সংযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। তাতে জলের চাপ কমে যাওয়ায় সব জায়গায় জল পৌঁছাচ্ছে না। এর জন্য অতিরিক্ত নলকূপ বসানোর জন্য জেলা প্রশাসনের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলেই কাজ শুরু হবে।

    First published:

    Tags: Arambag, Hooghly

    পরবর্তী খবর