হোম /খবর /হুগলি /
ঝু্ঁকি নিয়ে চলছে চিকিৎসা, স্বাস্থ্য কেন্দ্রের বেহাল দশায় আতঙ্কিত রোগীরা

Hooghly News: স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ঝুঁকি নিয়ে চলছে চিকিৎসা, কবে হবে সংস্কার প্রশ্ন গ্রামবাসীদের

X
title=

স্বাস্থ্য কেন্দ্রের  ঘরের দেওয়ালে ধরেছে ফাটল। উপরের ছাদে গজিয়েছে আগাছা। ভেঙ্গে গিয়েছে জানলার কাঁচ,ছাদ থেকে চাঙর খসে পরছে । ঝুঁকি নিয়েই চলছে চিকিৎসা পরিষেবা।

  • Hyperlocal
  • Last Updated :
  • Share this:

    হুগলি: পান্ডুয়ার খন্যান ইটাচুনা প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা করাতে আসেন বহু মানুষ। ইটাচুনা, বড় সরসা, মান্দারন, মাকালডি, খন্যান সহ ১৭ টি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ চিকিৎসা করাতে আসেন এই প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। প্রাথমিক চিকিৎসা থেকে টিবি রোগের চিকিৎসায় আউটডোর পরিষেবা পেয়ে থাকেন মানুষ। কিন্তু সেই স্বাস্থ্য কেন্দ্রেরই বেহাল স্বাস্থ্য। ঘরের দেওয়াএ ধরেছে ফাটল, ছাদের উপরে গজিয়েছে আগাছা,ভেঙে গিয়েছে জানলার কাঁচ,ছাদ থেকে চাঙর খসে পরছে । ঝুঁকি নিয়েই চলছে চিকিৎসা পরিষেবা।

    চিকিৎসা করাতে আসা বৃন্দাবন ঘোষ বলেন, কাছাকাছি কোন হাসপাতাল না থাকায় একমাত্র ভরসা এই প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র। না হলে অনেকটা দূরে হুগলির পান্ডুয়া গ্রামীণ হাসপাতালে যেতে হবে। প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের অবস্থা বেহাল। যদি কোন অঘটন ঘটে যায় তার দায় কে নেবে ? যদি সংস্কার করে নতুনভাবে করা হয় তাহলে ভাল হয়। চিকিৎসা করাতে এসে ভয় লাগে, তবুও কোন উপায় নেই তাই এখানেই আসতে হয়।

    আরও পড়ুন -  Hooghly News: কামারপুকুরে শ্রীরামকৃষ্ণ দেবের জন্মতিথিতে ভক্তদের ঢল

    চিকিৎসা করাতে আসা অপর এক রোগী জানান, হাসপাতালের বিল্ডিং এর অবস্থা ভাল নয় যেকোনো সময় ভেঙে পড়তে পারে উপরের চাঙর। কোন দুর্ঘটনা ঘটে গেলে কি হবে? প্রশাসন যদি নজর দেয় তাহলে ভালো হয়। আমরা চাই হাসপাতালের উন্নয়ন হোক।

    ইটাচুনা প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসক অর্পণ পুরকাইত জানান, হাসপাতালের অবস্থা ভালো নেই। হাসপাতালের আউটডোর ,ভ্যাকসিন রুম সহ বিভিন্ন জায়গায় ফাটল ধরেছে। আমরা যে ঘরে বসে চিকিৎসা করছি সেটাতেও ফাটল ধরেছে। ভয় লাগে, যেকোনো সময় ভেঙে পড়তে পারে। বিষয়টি পান্ডুয়া BMOH কে জানানো হয়েছে। ইঞ্জিনিয়ার সহ তারা এসে পরিদর্শন করে গেছেন।

    আরও পড়ুন-  International Mother Language Day: বাংলা ভাষার জন্য দিয়েছিলেন প্রাণ, অযত্নে পড়ে আজ পৈত্রিক বাড়ি

    হুগলি জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য অধিকারী রমা ভূঁইয়া জানান, হাসপাতাল রিপেয়ারিং করার জন্য এস্টিমেট করার কথা বলেছি। যত দ্রুত সম্ভব আমরা কাজ চালু করব।

    রাহী হালদার

    First published:

    Tags: Hooghly, South bengal news