Football World Cup 2018

তৃতীয় কন্যাসন্তানের জন্য মিলবে ২১,০০০ টাকা অনুদান

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 03, 2017 11:09 AM IST
তৃতীয় কন্যাসন্তানের জন্য মিলবে ২১,০০০ টাকা অনুদান
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Apr 03, 2017 11:09 AM IST

#চণ্ডীগড়: গত কয়েক বছরে ছেলে মেয়ের অনুপাত অনেকটাই কমেছে ৷ কন্যা সন্তান বা ভ্রুণ হত্যা কমানোর জন্য “আপকি বেটি, হামারি বেটি” স্কিম চালু করেছিল হরিয়ানা সরকার ৷ এই প্রকল্পের আওতায় প্রথমে BPLও SC-দের অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয় ৷ প্রথম কন্যা সন্তানের ক্ষেত্রে এই অনুদান মিলবে বলে ঘোষমা করা হয় ৷ এরপর জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে এই একই অনুদান প্রযোজ্য করা হয় দ্বিতীয় কন্যাসন্তানের জন্যেও। এবার এই প্রকল্পের আওতায় তৃতীয় কন্যা সন্তানের জন্যেও মিলবে ২১,০০০ টাকা অনুদান ৷ সম্প্রতি এমনই ঘোষণা করা হয় সরকারের তরফে ৷

সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ২৪ অগাস্ট ২০১৫ সালের পর যে পরিবারে তৃতীয় কন্যা সন্তান জন্ম নিয়েছে তাদেক এককালীন ২১ হাজার টাকা অনুদান দেওয়া হবে ৷ শহর ও গ্রামাঞ্চলে দু’ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হবে এই স্কিম ৷

রাজ্যের স্বর্ণ জয়ন্তী বর্ষ উপলক্ষে ২০১৫-তে এই “আপকি বেটি, হামারি বেটি” প্রকল্পটি চালু করা হয়েছিল ৷ সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত বহু পরিবারের কন্যাসন্তানকে মেনে নেওয়া হয় না ৷ বেশিরভাগ সময় তারা গর্ভবতী মহিলার লিঙ্গ নির্ধারণ করে থাকে। মেয়ে সন্তান থাকলে গর্ভপাত করতে বাধ্য করা হয় মহিলাদের ৷ গর্ভস্থ শিশুটি মেয়ে না ছেলে তা আগে থেকেই তারা জেনে নেওয়ার চেষ্টা করে ৷ এর মূল কারণ হল ছেলে সন্তানের চাহিদা ৷ যাদের প্রথম সন্তান মেয়ে তাদের মধ্যে এই প্রবণতা বেশি দেখা যায় ৷ এর জেরে ছেলেদের থেকে মেয়েদের সংখ্যা অনেকটাই কমতে থাকে রাজ্যে ৷

২০১১ সালে জনগণনা অনুসারে হরিয়ানায় প্রত্যেক হাজার ছেলের অনুপাতে ৮৩৪ জন মেয়ে জন্মেছে। তবে এবছর তা ৯০০ হয়েছে ৷ সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছে “আপকি বেটি, হামারি বেটি” প্রকল্পের জন্যে এই উন্নতি দেখা গিয়েছে ৷ ছেলে ও মেয়েদের অনুপাত কমিয়ে ৯৩০ করায় এখন তাদের মূল উদ্দেশ্য বলে জানানো হয়েছে সরকারের তরফে ৷

First published: 11:09:14 AM Apr 03, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर