GST: নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসে কী প্রভাব ফেলল ‘এক দেশ এক কর’

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 30, 2017 12:17 PM IST
GST: নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসে কী প্রভাব ফেলল ‘এক দেশ এক কর’
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Mar 30, 2017 12:17 PM IST

#নয়াদিল্লি: তুমুল তর্ক বিতর্কের পর লোকসভায় পাশ হয়ে গেল জিএসটি চালু করার জন্য প্রয়োজনীয় চারটি বিল। এ বার আলাদা আলাদা ভাবে উৎপাদন শুল্ক, আমদানি শুল্ক ও পরিষেবা করের বদলে ১ জুলাই থেকে দেশ জুড়ে চালু হবে অভিন্ন পণ্য-পরিষেবা কর ৷ তাতে দেশের কর ব্যবস্থায় ঘটবে আমূল পরিবর্তন।

টানা সাত ঘণ্টা বিতর্কের পর অবশেষে লোকসভায় পাশ হল চারটি বিল ৷ জিএসটি চালু করার জন্য লোকসভায় চারটি বিল পাশ হয়ে যাওয়ার পর অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে কর কাঠামোর পুনর্গঠনের প্রয়োজন ছিল ৷ ভারতে বহু প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ কর রয়েছে ৷ করগুলিকে একটি কাঠামোয় আনা প্রয়োজন ৷ দেশে একটিই কর কাঠামো থাকবে ৷ কেন্দ্রীয় কর ও রাজ্যের কর মিশে যাবে ৷ যুক্তরাষ্ট্রীয় কর কাঠামো তৈরি হবে ৷ GST সেই কাজ করবে ৷ বিরোধীদের আতঙ্কিত হবার কারণ নেই ৷ দেশের মানুষের চিন্তার কিছু নেই ৷ এতে খারাপ হবে না ভালই হবে ৷ ১ জুলাই থেকে GST শুরু করতে চাই ৷’

সংসদে GST বিল পেশ নিয়ে দেশবাসীকে ধন্যবাদ দেয় মোদি ৷ ট্যুইট করে বলেন, ‘নতুন বছরে নতুন ভারতে নতুন আইন ৷’

GST অথবা অভিন্ন পণ্য ও পরিষেবা কর কী তা জেনে নেওয়া যাক,

জিএসটি একটি বিশেষ কর ব্যবস্থা যা বর্তমান পরোক্ষ করের পরিবর্তে কার্যকর হবে ৷ পণ্য এবং পরিষেবা, দু'টির উপরই কার্যকর হবে জিএসটি ৷ এই কর ব্যবস্থার দু'টি স্তর বা কাঠামো। কেন্দ্রীয় জিএসটি এবং রাজ্য জিএসটি ৷ পণ্য ও পরিষেবা কর চালু হওয়ায় কেন্দ্রে ও রাজ্যের একাধিক কর বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

কেন্দ্রীয় করের বিলুপ্তিতে রয়েছে, সেন্ট্রাল এক্সাইজ ডিউটি, অতিরিক্ত আবগারি ও কাস্টম ডিউটি, স্পেশাল অ্যাডিশনাল ডিউটি অফ কাস্টমস বা স্যাড, পরিষেবা কর ৷ পণ্য ও পরিষেবা প্রদানে সেস ও সারচার্জ ৷

রাজ্যের করের বিলুপ্তি রয়েছে, ভ্যাট, কেন্দ্রীয় বিক্রয় কর, পারচেজ ট্যাক্স, লাক্সারি ট্যাক্স, প্রবেশ কর, বিনোদর কর, বিজ্ঞাপন, লটারি, বাজি ও জুয়ায় কর, স্টেট সেস অ্যান্ড সারচার্জ ৷

অর্থনীতিবিদের একটা বড় অংশের মতে, জিএসটি চালু হওয়ার পর লাভবান হবে দেশের অর্থনীতি। উপকৃত হবেন সাধারণ মানুষও। জিএসটির সুবিধা হল করফাঁকি রোধ, কমবে করের হার, কমবে কর ব্যবস্থার জটিলতাও, ব্যবসা-বাণিজ্যের সরলীকরণ, বাড়বে জাতীয় আয় ৷

এখন কোনও পণ্য উৎপাদন থেকে শুরু করে, তা বিক্রির জায়গা পর্যন্ত নানা ধাপে কর দিতে হয়। অনেক ক্ষেত্রে যেগুলো বুঝতেও পারেন না ক্রেতা বা উপভোক্তা। পরতে পরতে কর না চাপিয়ে, দেশে একটি মাত্র কর ব্যবস্থা চালু করাই জিএসটির লক্ষ্য।

বুধবার রাতে GST-এর জন্য যে চারটি বিল পাশ করা হয়েছে সেগুলি হল— দ্য ইউনিয়ন টেরিটরি জিএসটি বিল ২০১৭, দ্য সেন্ট্রাল জিএসটি বিল ২০১৭, দ্য ইন্টিগ্রেটেড জিএসটি বিল ২০১৭, দ্য জিএসটি এবং কমপেনশেসন টু স্টেটস বিল ২০১৭ ৷

১ জুলাই তিনটি ক্ষেত্রে চালু হবে জিএসটি।

জমি ও বাড়ি

গাড়ি

ঋণ ও সোনা

আর এই ক্ষেত্রগুলিতে জিএসটি ধার্য হওয়ার ফলে সাধারণ মানুষের ওপরই চাপ বাড়ার সম্ভাবনা।

জমি বা বাড়ির লিজ, ভাড়া এমনকী বাড়ির ঋণেও ধার্য হবে জিএসটি

জমি কেনা বা বিক্রিতে অবশ্য এখনই জিএসটি নয়

এই দুই ক্ষেত্রে স্ট্যাম্প ডিউটিই ধার্য হবে

জল, বিদ্যুতও জিএসটির বাইরে থাকছে

গাড়ি উৎপাদন ও বিক্রিতে চাপছে জিএসটি

জিএসটি-তে বিভিন্ন পণ্যগুলিকে চারটি কর স্তরে ভাগ করা হয়েছে ৷ সবচেয়ে উপরের স্তরে রয়েছে বিলাসজাত দ্রব্য, অর্থাৎ আমোদ-প্রমোদ ও বিলাসে ব্যবহৃত বস্তুর জন্য ২৮ শতাংশ কর দিতে হবে ৷ বাকি করের স্ল্যাবগুলি হল, ৫, ১২ ও ১৮ শতাংশ ৷

বিলাসজাত দ্রব্যের মধ্যে পড়ছে, তামাক থেকে দামী গাড়ি ৷ এই ট্যাক্স স্ল্যাবে করের সঙ্গে ২ শতাংশ সেসও যোগ হবে ৷ জিএসটি চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মোবাইল পরিষেবা, ফোন বিল, হোটেলে খাওয়ার খরচ, প্লেনের টিকিট, রেল টিকিট আরও মহার্ঘ হয়ে উঠবে ৷

অন্যদিকে জিএসটি লাগু হওয়ার পর দুচাকা গাড়ি অর্থাৎ বাইক-সাইকেল, ছোট গাড়ি, পাখা, ওয়াটার হিটার, কুলারের দাম কমবে ৷ সস্তা হবে সিনেমার টিকিট ৷

First published: 12:15:15 PM Mar 30, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर