এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি আর্মেনিয়ান ঘাটের গোডাউনের আগুন

আগুনের তীব্রতা কমলেও, এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি পরিস্থিতি। অতি দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন নেভাতে হিমশিম অবস্থা দমকলের।

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Nov 08, 2017 09:28 AM IST
এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি আর্মেনিয়ান ঘাটের গোডাউনের আগুন
নিজস্ব চিত্র
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Nov 08, 2017 09:28 AM IST

#কলকাতা: আগুনের তীব্রতা কমলেও, এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি পরিস্থিতি। অতি দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন নেভাতে হিমশিম অবস্থা দমকলের। জলের পাশাপাশি, ব্যবহার করা হচ্ছে ফোম। গতকাল সন্ধে সাড়ে সাতটা নাগাদ পোর্ট ট্রাস্টের গোডাউনে আগুন লেগেছিল। 

আর্মেনিয়ান ঘাটের গোডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় শুরু চাপানউতোর। দমকলের দাবি, গোডাউনে ব্যারেল ভরতি ডিজেল ছিল। তা থেকেই আগুন ছড়িয়েছে। পোর্ট ট্রাস্টের পাল্টা দাবি, একটি সমবায় সমিতিই ফেরি পরিষেবার জন্য ডিজেল মজুত করেছিল। আগুন নেভাতে বন্দরের কর্মীরাও এগিয়ে এসেছেন। বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডের জেরে আর্মেনিয়ান ঘাট থেকে বন্ধ ফেরি পরিষেবা।

দু'মাসের মধ্যে পোর্ট ট্রাস্টের গোডাউনে ফের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রশ্নে নজরদারি। এর দায় কার? তা নিয়ে দমকল ও বন্দর কর্তৃপক্ষের মধ্যে চলছে চাপানউতোর। আগুন লাগার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যান দমকলমন্ত্রী। তাঁর বক্তব্য, মজুত থাকা ডিজেল থেকেই এভাবে আগুন ছড়িয়ে থাকতে পারে। তদন্তেই তা স্পষ্ট হয়ে যাবে।

দমকল বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টরও নিশ্চিত ডিজেলের ব্যারেল থেকেই আগুন ছড়িয়েছে। গোডাউনে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

তবে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিজেদের দায় সরাসরি নিতে নারাজ বন্দর কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, হুগলি নদী জলপথ পরিবহণ সমবায় সমিতি ডিজেল মজুত করেছিল। তারা আরও দাবি করেছে,

- পোর্টের কর্মীরা আগুন দেখে দমকলে খবর দেয়

- মজুত ডিজেল থেকেই আগুন লাগে

- ফেরি পরিষেবার জন্য মজুত ছিল ডিজেল

- পোর্ট ট্রাস্টের থেকে গোডাউন ভাড়া নিয়েছিল মেসার্স রোড ইন্ডিয়া

- ভাড়া বকেয়া থাকায় তাদের উচ্ছেদ করে পোর্ট ট্রাস্ট

- গোডাউনটি কয়েক মাস ধরেজস্ব  পোর্ট ট্রাস্টের অধীনে ছিল

- আগুন নেভানোর তদারকিতে পোর্টের আধিকারিকরা

এদিকে, এই চাপানউতোরের মধ্যেই আরও ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। বরাত জোরে আশপাশের দোকান, গোডাউন বেঁচে গিয়েছে। তবে, ওই এলাকার বহু মানুষকে প্রাণ বাঁচাতে নিরাপদ জায়গায় আশ্রয় নিতে হয়েছে।

First published: 09:28:34 AM Nov 08, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर