১২ বছর বয়সী ছোট্ট শ্রেয়া ঘোষালের গান ভাইরাল ! ভিডিওতে প্রশংসার ঝড়

photo source Instagram

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে রিয়েলিটি শোয়ের মঞ্চে সোনু নিগমের সঙ্গে গলা মিলিয়ে গান গাইছেন ছোট্ট শ্রেয়া। বয়স মাত্র ১২।

  • Share this:

    #কলকাতা:  শ্রেয়া ঘোষাল (shreya ghoshal) । ১৯ বছর আগে তাঁর বয়স ছিল ১৬ ৷ সেই ষোড়শীর উপর ভরসা রেখেছিলেন সঞ্জয় লীলা বনশালি ৷ ১২ জুলাই ছিল সেই বিশেষ দিন ৷ ২০০২-এর এই দিনই মুক্তি পেয়েছিল ‘দেবদাস’৷ এর পর থেকে একের পর এক বলিউডি ছবিতে শুধুই শ্রেয়ার গলায় মুগ্ধ হয়েছেন মানুষ। তবে শ্রেয়া দূরদর্শনে রিয়েলিটি শো- দিয়েই টিনসেল টাউনে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। সে সময় শ্রেয়ার বয়স কতই বা হবে। মাত্র ৬ বছর বয়স থেকেই সঙ্গীতকে জীবনের সব কিছু ভেবে সাধনা শুরু করেন শ্রেয়া। তারপর এই ছোট্ট মেয়ে তাঁর গলার জাদুতে 'সা রে গা মা'র বিচারকদের চমকে দেন।

    সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে রিয়েলিটি শোয়ের মঞ্চে সোনু নিগমের সঙ্গে গলা মিলিয়ে গান গাইছেন ছোট্ট শ্রেয়া। বয়স মাত্র ১২। মঞ্চে দাঁড়িয়ে শ্রেয়া বলছেন তিনি বিচারক কল্যানজি, আনন্দজির সামনে গান গেয়েছেন। এর পরেই সোনু নিগমের সঙ্গে গলা মিলিয়ে শ্রেয়া গাইলেন, " আজি রুঠ কর আব কহা যায়িগা, জাহা যায়িগা হামে পাইয়েগা" গানটি। ১৯৬৫ এর ছবি 'আরজু'র গান এটি। লতা মঙ্গেশকরের গাওয়া জনপ্রিয় একটি গান। তবে শ্রেয়া ওইটুকু বয়সেই এই গান গেয়ে তাক লাগিয়ে দেন সকলকে। সোনু নিগম বয়সে অনেক বড়। সে সময় তিনি প্রতিষ্ঠিত শিল্পী। তাঁর সঙ্গেই গলা মেলালেন শ্রেয়া। এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হতেই ভাইরাল হয়।

    এই সময়েই সঞ্জয় লীলা বনশালির নজরে পড়েন শ্রেয়া। তার ঠিক তিন বছর পরেই মাত্র ১৬ বছর বয়সে 'দেবদাস' ছবিতে একের পরে একে গানে চমকে দেন শ্রেয়া। বনশালিই শ্রেয়াকে বলিউডে নিয়ে আসেন। এর পর সোনু নিগমের সঙ্গে জুটি বেঁধে বহু ছবিতে গান গান শ্রেয়া। তাঁর একের পর এক গান হিট হয়। কিছুদিন আগেই মা হয়েছেন শ্রেয়া। তবে থেমে নেই কাজ। বাংলা ছবিতেও চুটিয়ে গান করেন শ্রেয়া। সম্প্রতি তাঁকে দেখা যাবে শ্রীজাত পরিচালিত ছবিতে গান গাইতে। এমনটা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন শ্রীজাত। শ্রেয়া বাস্তব জীবনেও খুব মিষ্টি একটি মেয়ে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ অ্যাক্টিভ। মাঝে মধ্যেই তাঁকে খালি গলায় গান গেয়ে শেয়ার করতে দেখা যায়।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: