• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • বিদেশের রাস্তায় মুখ থুবড়ে পড়লেন বলি অভিনেত্রী ! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও

বিদেশের রাস্তায় মুখ থুবড়ে পড়লেন বলি অভিনেত্রী ! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও

এই অভিনেত্রী ইনস্টাগ্রামেও বেশ অ্যাক্টিভ। জীবনের নানা ঘটনা তাঁর ফ্যানেদেরকে জানাতে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এই অভিনেত্রী ইনস্টাগ্রামেও বেশ অ্যাক্টিভ। জীবনের নানা ঘটনা তাঁর ফ্যানেদেরকে জানাতে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এই অভিনেত্রী ইনস্টাগ্রামেও বেশ অ্যাক্টিভ। জীবনের নানা ঘটনা তাঁর ফ্যানেদেরকে জানাতে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

  • Share this:

    #মুম্বই: সুরভি জ্যোতি। বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী। বিশেষ করে ছোট পর্দাতেই মূল চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায় তাঁকে। সুরভি এখন চর্চায় আছেন টেলিভিশনে 'নাগিন' চরিত্রে অভিনয়ের জন্য। তাছাড়া সুরভিকে নিয়ে মাঝে মধ্যেই নানা কিছু শোনা যায়। এই অভিনেত্রী ইনস্টাগ্রামেও বেশ অ্যাক্টিভ। জীবনের নানা ঘটনা তাঁর ফ্যানেদেরকে জানাতে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সুরভি সাহসী পোশাক পরার জন্যও বেশ কয়েকবার চর্চায় এসেছেন।

    View this post on Instagram

    A post shared by Surbhi Jyoti (@surbhijyoti)

    তবে এবার তিনি একদম অন্য কারণে নেটিজেনদের আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছেন। সম্প্রতি অভিনেত্রী তাঁর ইনস্টাতে তিনটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে অফ হোয়াইট লেহেঙ্গা পরেছেন তিনি। মাথায় ওড়না দেওয়া। বিদেশের রাস্তায় বেরিয়েছেন অভিনেত্রী। হঠাৎ পায়ে লেহেঙ্গা আটকে রাস্তায় উল্টে পড়লেন সুরভি। তাঁর পাশেই একজন ছেলে ছিলেন সে সামালনোর আগেই মাটিতে পড়ে গেলেন। তবে একবার তিন তিন বার এভাবেই পড়ে গেলেন তিনি। এও সম্ভব একবার হতে পারে তাইবলে তিনবার? এই ভিডিও দেখার সঙ্গে সঙ্গে সকলে জানতে চান এই ভিডিও সত্যি না মিথ্যে? নাকি এটা একটি ফটোশ্যুট? যদিও তাঁর জবাবে ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনেই দিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী।

    এই ভিডিও সত্যি নয়। মানে সুরভি পড়ে গিয়েছেন এটা সত্যি। কিন্তু এই পড়ে যাওয়া আচমকা নয় ইচ্ছাকৃত। তিন তিন বার নানা রকম ভাবে পড়েছেন তিনি। আর এই পড়ে যাওয়ার দৃশ্যকেই ক্যামেরাবন্দি করা হচ্ছিল বিদেশের রাস্তায়। এটি তাঁর একটি আপকামিং সিরিয়ালের শ্যুটিংয়ের দৃশ্য। সুরভি 'কবুল হ্যায় ২'-তে অভিনয় করছেন। আর সেই শ্যুটিংয়ের দৃশ্যই তিনি পোস্ট করেছেন। তবে ভিডিও দারুণ মজার।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: