বিজেপিতে যোগ দিতে আসার আগে মুখ্যমন্ত্রীর থেকে আশীর্বাদ চান যশ

বিজেপিতে যোগ দিতে আসার আগে মুখ্যমন্ত্রীর থেকে আশীর্বাদ চান যশ

বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গী, মুকুল রায় ও স্বপন দাশগুপ্তের উপস্থিতিতে তিনি গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন। তবে বিজেপি-তে যোগ দিলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল বলেই জানিয়েছেন।

বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গী, মুকুল রায় ও স্বপন দাশগুপ্তের উপস্থিতিতে তিনি গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন। তবে বিজেপি-তে যোগ দিলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল বলেই জানিয়েছেন।

  • Share this:

    #কলকাতা: সকাল থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছিল। অবশেষে জল্পনা কাটল। বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গী, মুকুল রায় ও স্বপন দাশগুপ্তের উপস্থিতিতে তিনি গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন। তবে বিজেপি-তে যোগ দিলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল বলেই জানিয়েছেন।

    যশ এদিন বলেন, যে তিনি এখনও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে যথেষ্ট শ্রদ্ধা করেন এবং এখনও নিজেকে দিদি-র ভাই বলেই মনে করেন। এদিন যশ এও জানান যে, বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আশীর্বাদও চেয়েছেন তিনি। তাই তাঁর বিরুদ্ধে কিছু বলতে চান না।

    এদিন পতাকা তুলে নেওয়ার পরেই রাজ্যে পরিবর্তনের প্রয়োজনের কথা শোনা যায় যশের মুখে। তিনি বলেন, "এই সিদ্ধান্ত হঠাৎ করে নেওয়া নয়। আমার বয়স কম। তাই আমার লক্ষ্যও তরুণ প্রজন্ম। বিজেপি সব সময়ে তরুণ প্রজন্মের উপরেই জোর দিয়েছে। রাজনীতি মানেই পরিবর্তন। আর পরিবর্তন আনতে গেলে সিস্টেমের মধ্যে এসে কাজ করা দরকার।"

    এদিন সকাল থেকেই যশ দাশগুপ্তের বিজেপি যোগদান নিয়ে জল্পনা চলছিল। যশের সঙ্গে বিগত কয়েকদিন অভিনেত্রী তথা তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহানের গুঞ্জন নিয়ে সরগরম টলিপাড়া। আর তার মধ্যেই বিজেপি-তে যোগ দিলেন যশ। তবে এই নিয়ে বন্ধুত্বে কোনও প্রভাব পড়বে না বলেই জানিয়েছেন যশ।

    তিনি বলছেন, নুসরত ও আমি বন্ধু। চলচ্চিত্র জগতে আমাদের বন্ধুত্ব। অভিনয় আমাদের পেশা। ওর আর আমার রাজনৈতিক মতাদর্শ আলাদা। মিমিও তো আমার বন্ধু এবং তিনিও তো তৃণমূলে। তবে আমরা একসঙ্গে কাজ করব।

    বন্ধুত্ব ও টলিউডে অভিনয়ের জগতে রাজনৈতিক রং লাগাতে চান না যশ। এদিন যশ ছাড়াও বিজেপি-তে যোদ দেন পাপিয়া অধিকারী, সৌমিলি ঘোষ বিশ্বাস, সুতপা সেন, অতনু রায়, অশোক ভদ্র, মল্লিকা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ আরও অনেকে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: