বিয়ের বিশেষ মুহূর্তের আগে কেন খুবই চিন্তিত ছিলেন তৃণা, কীসের ভয় পেয়েছিলেন, নিজেই জানালেন ভিডিওতে, দেখুন

বিয়ের বিশেষ মুহূর্তের আগে কেন খুবই চিন্তিত ছিলেন তৃণা, কীসের ভয় পেয়েছিলেন, নিজেই জানালেন ভিডিওতে, দেখুন
তৃণা সাহা

নিজেই সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন তিনি৷

  • Share this:

    #কলকাতা: ধুমধাম করে সাত পাকে বাঁধা পড়লেন টলি স্টার নাল ভট্টাচার্য ও তৃণা সাহা৷ একেবারে স্বপ্নের মত ছিল তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠান৷ ভক্তরা চাক্ষুষ করলেন রূপকথা! শ্বশুড়বাড়িতে গিয়েও একের পর এক ভিডিও-ছবি আপলোড করছেন তৃণা৷ নীলও নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় দিচ্ছেন একের পর এক রঙিন ছবি৷ যা দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন সকলে৷ এর মধ্যেই একটা এমন ভিডিও শেয়ার করলেন তৃণা, তাতে সকলে একটু অবাকই হলেন৷ কারণ তিনি বলছেন যে বিয়ের দিন তিনি কোনও চাপ বা স্ট্রেস নিতে চান না৷ অর্থাৎ বিয়ের আগের এই ভিডিও তিনি এখন শেয়ার করেছেন৷ যেখানে তাঁকে বেশ উদ্বিগ্নও দেখা যাচ্ছে এবং তিনি বলছেন যে, এই দিনটা সবথেকে খুশির দিন তাঁর জীবনে৷ তাই মন খুলে আনন্দ করতে চান তিনি৷ কিন্তু তা হচ্ছে না৷ তিনি খুবই নার্ভাস! কেন এত নার্ভাস তৃণা৷ পাত্র তো তাঁর বহুদিনের বন্ধু...তাহলে কীসের ভয় গ্রাস করেছিল তৃণাকে, যা তিনি কাটিয়ে উঠতে চাইছিলেন৷

    ৪ ফেব্রুয়ারি বাইপাসের একটি অভিজাত রিসোর্টে বসেছিল নীল-তৃণার বিয়ের আসর। সেই হিসেবে ৬ ফেব্রুয়ারি ছিল নিয়মমাফিক 'ত্রিনীল'-র বউভাত এবং ফুলসজ্জা। সেই দুটি অনুষ্ঠানই মিটেছে সুষ্ঠুভাবে। বউভাতে লাল-সবুজের মিশেলে একটি সিল্কের শাড়িতে নীলের পাতে ঘি-ভাত পরিবেশন করেছেন 'গুনগুন'। সেই ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে। এরপর সন্ধ্যায় আত্মীয় বন্ধুদের সঙ্গে কেটেছে হুল্লোড় করে। বিয়ের সব অনুষ্ঠান কেটেছে সুষ্ঠুভাবে৷ এখন তৃণা সাহা হয়ে গিয়েছেন তৃণা ভট্টাচার্য৷

    উল্লেখ্য নিজেদের কর্মজীবনে নীল-তৃণা দু’জনেই খুব সফল৷ এই মুহূর্তে তৃণা অভিনীত ধারাবাহিক খড়কুটো এবং নীল অভিনীত ধারাবাহিক কৃষ্ণকলী সুপারহিট৷ রোজ সন্ধ্যায় বাঙালি ঘরে ঘরে পৌঁছে যান তাঁরা৷ আর দু’জনেই বেশ জনপ্রিয়৷ ফলে এই অভিনেতা-অভিনেত্রীর বিয়ে নিয়েও উৎসাহ ছিল সাধারণ মানুষের৷

    নিজেদের বিয়েতে চুটিয়ে মজাও করেছেন দু’জনে৷ এমনকী শ্বশুড়বাড়িতে গিয়ে তৃণার নাচের ভিডিও খুব ভাইরাল হয়েছে৷ তারপরও তৃণা বলছেন চাপের কথা? এটা কেন? কীসের ভয় ছিল তাঁর? বিয়ের আগে সব মেয়েরই চিন্তা থাকে শ্বশুড়বাড়ি নিয়ে, নতুন করে সেই বাড়িতে গিয়ে নিজেকে মানিয়ে নেওয়া নিয়ে৷ কিন্তু সময়ের সাথে সাথে সবই নিয়ম পাল্টেছে৷ এখন আর শ্বশুড়বাড়িতে বৌমার মত নয়, বাড়ির মেয়ের মতই জীবনযাপন করে বৌমারা৷ তাই তৃণার ভয়ের কারণ কী?

    নিজেই সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন তিনি৷ এটা একটি সুগন্ধির বিজ্ঞাপন৷ নিজেকে উজ্জীবিত রাখতে এই সুগন্ধির ব্যবহারের প্রচার করছেন তৃণা৷ তাই তো বলছেন যে, মানসিক চাপ কাটতে পারে এমন সুগন্ধি ব্যবহারে!

    Published by:Pooja Basu
    First published: