ছবি ভালবাসি ! কিন্তু ওয়েব সিরিজটা একটা চ্যালেঞ্জ: অয়ন চক্রবর্তী

ছবি ভালবাসি ! কিন্তু ওয়েব সিরিজটা একটা চ্যালেঞ্জ: অয়ন চক্রবর্তী

মুক্তি পেল অয়ন চক্রবর্তীর ওয়েব সিরিজ জাজমেন্ট ডে৷ তার আগেই মুখোমুখি পরিচালকের৷

  • Share this:

#কলকাতা: পরিচালক অয়ন চক্রবর্তীর ওয়েব সিরিজ জাজমেন্ট ডের স্ট্রিমিং শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই৷ মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে শুরু হয় স্ট্রিমিং৷ তার আগেই ফোনে ধরা গেল অয়নকে৷ স্বভাবসিদ্ধ শান্তভঙ্গিতে কথা বললেন অয়ন৷ তবে কথার শুরু হলে গলায় ধরা পড়ল উচ্ছ্বাস৷ তার সঙ্গে কথা বললেন পূজা বসু দত্ত৷

প্রশ্ন- সিরিজ বানানোর অভিজ্ঞতা কেমন? উত্তর- খুবই ভাল৷ দ্বিভাষী এই সিরিজে ৫০০ মিনিট বাংলা এবং ৫০০ মিনিট হিন্দি ভাষায় শ্যুট হয়েছে৷ প্রায় ৬০ দিনের শ্যুটিং চলেছে৷ ফলে ইউনিটের মধ্যে তৈরি হয়েছিল দারুণ বন্ডিং৷ কাজও হয়েছে মজা করে৷ তাই অভিজ্ঞতা বেশ ভাল৷ তবে যেহেতু এটা একটা থ্রিলার৷ তাই গতি বা পেস ধরে রাখা চ্যালেঞ্জ ছিল৷ এবং এর সেকেন্ড সিজনও আসবে৷ তাই সেভাবে শ্যুট করেত েহয়েছে৷

প্রশ্ন-ছবি নাকি সিরিজ, কোনটাকে এগিয়ে রাখবে? উত্তর- অবশ্যই ছবি৷ কারণ বড় পর্দায় ছবি দেখার মজাই আলাদা৷ আমি নিজে বড়পর্দার প্রেমী৷ তাই দেখার দিক থেকে ছবিই এগিয়ে থাকবে৷ তবে আমি জাজমেন্ট ডে একেবারে ছবির মতো করেই শ্যুট করেছি৷

প্রশ্ন- এই মুহূর্তে কতটা প্রাসঙ্গিক জাজমেন্ট ডে ইস্যুটি? কেন এই বিষয়টি নির্বাচন করলেন? উত্তর- আমার তৈরি সিরিজে ঠিক ধর্ষণ নয়, ধর্ষণ নিয়ে সমাজে মনোভাবকে তুলে ধরেছি৷ দিনে গড়ে ৯০টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে৷ তাও যেগুলির অভিযোগ দায়ের হয়৷ বাকি আরও কত ঘটছে, তা জানা যায় না৷ এবং যারা ধর্ষিতা, তাদের নিয়েই বেশি আলোচনা হয়৷ কেন এমন জামা পরেছে? এই সময় বাইরে থাকা উচিত হয়নি, এমন প্রশ্ন ওঠে তাদের নিয়েই৷ এমন নৃশংস ঘটনার জন্য ধর্ষিতাদেরই দায়ী করা হয়৷ ২০১৭-র স্ক্রিপ্ট লিখেছিলাম৷ খবরের কাগজ, টিভি বা নিজের কিছু অভিজ্ঞতা থেকেই এই বিষয়টি বেছে নিয়েছিলাম৷ আমরা এত সভ্য হচ্ছি, শিক্ষিত হচ্ছি, কিন্তু কিছুতেই ধর্ষণ নিয়ে মনোভাব বদলাচ্ছে না৷

প্রশ্ন-মধুমিতা ও সোহিনীর সঙ্গে কাজ করে কেমন লাগল? উত্তর- সোহিনীর সঙ্গে আগে কাজ করেছি৷ ও অসম্ভব ভাল অভিনেত্রী৷ তবে আমায় অবাক করেছে মধুমিতা৷ ওকে দেখতে খুব ভাল লাগত আমার৷ ওর একটি সিরিয়াল নিয়মিত দেখতাম৷ তবে ওযে এত ভাল অভিনেত্রী, কাজ করতে গিয়ে তার প্রমাণ পেলাম৷

প্রশ্ন-বান্ধবীর জন্মদিনের দিনই জাজমেন্ট ডে স্ক্রিনিং শুরু হচ্ছে৷ এটা কি প্রিয়তমার বার্থডে গিফ্ট? উত্তর- (শান্ত আবার মজাদার ভাবে) হ্যাঁ মিটিং-এ বলেছিলাম ওদিন অদিতির জন্মদিন৷ ডেট টা পিছিয়ে ৫ ফেব্রুয়ারি করে দিন!

First published: February 5, 2020, 5:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर