Home /News /entertainment /
‘যত খুশি সাংবাদিক বৈঠক করুন, আমি ‘গুমনামি বাবা’ বানাবই’, পাল্টা সৃজিত

‘যত খুশি সাংবাদিক বৈঠক করুন, আমি ‘গুমনামি বাবা’ বানাবই’, পাল্টা সৃজিত

সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরবর্তী হিন্দি ছবি ‘গুমনাম বাবা’ ৷ মুক্তি পাবে ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে ৷ সেই ছবির বিষয়বস্তু নিয়েই জোর তরজা শুরু হয়ে গিয়েছে ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: ‘গুমনামি বাবা’ নিয়ে বিতর্কের ঢেউ টলি-পাড়া ছাড়িয়ে এখন ব্যক্তিগত পরিসরে উঁকি মারছে ৷ সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরবর্তী হিন্দি ছবি ‘গুমনামি বাবা’ ৷ মুক্তি পাবে ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে ৷ সেই ছবির বিষয়বস্তু নিয়েই জোর তরজা শুরু হয়ে গিয়েছে ৷ সোনা গিয়েছে, ছবিটির মূল চরিত্রের সঙ্গে নেতাজির অন্তর্ধানের যোগসূত্র রয়েছে ৷ আর এতেই প্রবল আপত্তি উঠেছে বসু পরিবারের তরফে ৷ বৃহস্পতিবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে একটি সাংবাদিক বৈঠক ডেকে সৃজিতের এই ছবি নিয়ে জোর আপত্তি তুলেছেন নেতাজির প্রপৌত্র চন্দ্র কুমার বসু ৷ চন্দ্রবাবুর বক্তব্য, যদি পরিচালকমশাইয়ের কাছে কোনও প্রমাণ থাকে তাহলে তা কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার কাছেও থাকত ৷ তাঁর অভিযোগ, এই ভাবে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চলছে ৷

    এই সাংবাদিক বৈঠকের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় কলম ধরেন সৃজিত ৷ চন্দ্রবাবুকে নিশানা করে পাল্টা সৃজিত লেখেন, ‘‘ফেসবুক, ট্যুইটারে অনেকেই বসু পরিবারের একাংশের বিরুদ্ধে জোর গলায় কথা বলেন ৷ ওঁনারা আমাদের জাতীয় নেতাকে ব্যাক্তিগত সম্পত্তির মতো রাখার চেষ্টা করেন ৷ অন্যদিকে, ওই পরিবারেরই অনেকে গুমনামি বাবার মতো  তত্ত্বে বিশ্বাসও করেন ৷’’ এরপরেই সরাসরি চন্দ্রবাবুর দিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন সৃজিত ৷ লেখেন, ‘‘যদি আপনি আমাকে কোর্টে নিয়ে যান, তাহলে আমি প্রডাকশন ডিজাইন ধার করে ছবি বানাব ৷ যদি আপনি আমাকে জেলে নিয়ে যান সেখানেও আমি ড্রাফ্ট বানাব, আর ফিরে এসে ছবি করব..........ছোট করে বলতে হয়, এই ছবিটা তৈরি হবেই ৷ আর যদি আপনি আর আপনাদের পরিবারের কিছু সদস্য অস্বস্তিতে পড়েন, তাহলে আরও সাংবাদিক বৈঠক ডাকতে পারেন ৷ আপনার সঙ্গে ২০২০-র জানুয়ারি মাসে ছবির প্রিমিয়ারে দেখা হবে ৷’’  
    First published:

    Tags: Chandra Kumar Bose, Controversy, Gumnami Baba, Netaji, Srijit Mukherjee

    পরবর্তী খবর