'বুড়ো-সাধু' ছবির সঙ্গীত পরিচালক প্রাঞ্জল দাসের মুখোমুখি সাক্ষাৎকার

প্রাঞ্জলের লেখা গান, 'জলে ঝাঁপাস না' ইতিমধ্যে ভাইরাল সোশাল মিডিয়ায়। গানটি লিখেছেন এবং গেয়েছেন প্রাঞ্জল নিজে

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 07, 2019 06:59 PM IST
'বুড়ো-সাধু' ছবির সঙ্গীত পরিচালক প্রাঞ্জল দাসের মুখোমুখি সাক্ষাৎকার
photo source facebook
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 07, 2019 06:59 PM IST

#কলকাতা: বুড়ো-সাধু। প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। তাঁর ছাত্র জীবন থেকে শুরু করে ছবির পরিচালক হওয়া কোনওটাই ঠিকভাবে হয়ে ওঠেনি। এই নিয়েই এগোবে ছবির গল্প। ছবিতে ঋত্বিক ছাড়াও রয়েছেন চিরঞ্জিত চক্রবর্তী, ঈশা সাহা সহ আরও অনেকে। ছবির পরিচালক ভিক। ভিকের এটা প্রথম ছবি। আর ছবির সঙ্গীত পরিচালনা করছেন প্রাঞ্জল দাস। প্রাঞ্জলের লেখা গান, 'জলে ঝাঁপাস না' ইতিমধ্যে ভাইরাল সোশাল মিডিয়ায়। গানটি লিখেছেন এবং গেয়েছেন প্রাঞ্জল নিজে। প্রাঞ্জল এর আগেও অনেকগুলি ছবিতে গান লিখেছেন, গেয়েছেন। তবে সঙ্গীত পরিচালকের ভূমিকায় এই প্রথম। নিজের কাজের অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলেন প্রাঞ্জল নিজেই।

আপনার সঙ্গে পরিচালকের যোগাযোগটা কিভাবে হল?

একটু হেসে বললেন। বিষয়টা বেশ মজার। আমি তো নিজের মতো গান লিখি। গান গাই। তা সেরকমই একটি গান আমি গেয়েছিলাম, 'জলে ঝাঁপাস না'। গানটা গেয়ে সেভাবে কোথাও ব্যবহার করা হয়নি। আমার প্রেমিকা এবং বর্তমান স্ত্রী মৃত্তিকা আমার এই গানটা শুনেছিল। ও এই ছবির ক্রিয়েটিভ প্রোডিউসার। সেই সময় ভিক অনেকের সঙ্গে কথা বলছে। মিউজিক ডিরেক্টর খুঁজছে। তখন মৃত্তিকার মোবাইলে এই গানটা রেকর্ড করা ছিল। ও ভিককে গানটা পাঠায়। ভিকের গানটা শুনে পছন্দ হয়। তারপর ভিক আমায় ডেকে পাঠায়। তারপর কাজ করতে শুরু করে।

প্রথমবার সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে কাজ করে কেমন লাগছে?

ভাল তো লাগছে অবশ্যই। তবে আমার লেখা গান গেয়েছেন অনুপম রায়, লগ্নাজিতা চক্রবর্তী, তিমির বিশ্বাসের মতো গায়করা। যা সত্যিই আমি কখনও ভাবিনি। তাঁরা প্রত্যেকেই বড় শিল্পী। তাঁদের সঙ্গে কাজ করতে পেরে নিজেকে সত্যিই ধন্য মনে হয়। এটা আমার কাছে বড় পাওয়া। আর আমি সত্যি খুব স্বাধীনভাবে কাজটা করতে পেরেছি। সব থেকে মজার বিষয় আমার এটা সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে প্রথম ছবি। ভিকেরও পরিচালক হিসেবে প্রথম কাজ। পরিচালক হিসেবে ভিকের ধারণাটা খুব পরিস্কার। ও জানে কি চাইছে! আর ও আমাকে স্বাধীনতা তো কাজের দিয়েছেই। অনেক সময় নিজের ইনপুটও দিয়েছে। যেমন একটা গানে ও ফোক চাইছিল। তো সেটা করার পর দেখলাম গানটা খুব ভাল হল। আর গানগুলোর ভিস্যুয়াল কনটেন্টও খুব ভাল করেছে ভিক।

Loading...

এই ছবিতে ক'টা গান আছে?

গান আছে চারটে। তার মধ্যে আমি একটা গেয়েছি। বাকি তিমিরদা গেয়েছে একটা গান। অনুপমদা আর রূপমদা বাকি দুটো গান গেয়েছে। আর লগ্নাজিতা একটা রবীন্দ্রসঙ্গীত গেয়েছে।

আপনার ব্যান্ড 'ব্যাড ট্রিপ'-এর কাজ কেমন চলছে?

ব্যাড ট্রিপ-তো আমার সব কিছু। সেটাকে তো থামিয়ে দিলে চলবে না। আমাদের গানের কাজ চলছে। ২০২০তে আমরা নতুন অ্যালবাম বের করবো। শো তো চলছেই।

'বুড়ো সাধু' ছাড়া আর কি কাজ চলছে ?

এই মুহূর্তে সদ্য মুক্তি পেয়েছে একটি ছবি 'লাভ স্টোরি'- সেখানেও আমার গান আছে। তাছাড়া রাজ চক্রবর্তীর ' শেষ থেকে শুরু'-র সব ক'টা গানই আমার লেখা। কাজ তো চলছেই। গান লেখা তো চলছেই। এছাড়াও আরও কয়েকজন পরিচালকের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তবে এখনও ফাইনাল কিছু হয়নি। দেখা যাক কতটা কি হয় !

তার মানে আমরা একজন নতুন তরতাজা সঙ্গীত পরিচালক, গায়ক ও লেখক পেলাম !

একটু হাসি ! না না তেমন কিছু নয় ! সে তো ভবিষ্যতই বলবে সফলতা কতটা আসবে। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি এই যা!

শুনে নিন প্রাঞ্জলের গলায় 'বুড়ো সাধু'র গান, অভিনয় করেছেন ঋত্বিক----

First published: 02:22:34 PM Oct 07, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर