‘দেব মানুষটা বড় ভাল’: পাওলি

‘দেব মানুষটা বড় ভাল’: পাওলি

‘সাঁঝবাতি’ দিয়ে নতুন ভাবে নিজেকে প্রকাশ করছেন পাওলি দাম। নিউজ 18 বাংলার সঙ্গে আড্ডা জমালেন নায়িকা।

  • Share this:

Arunima Dey

#কলকাতা: কেরিয়ারের গোড়ার দিক থেকেই অন্য কিছু করতে চেয়েছেন তিনি। মোটা দাগের বাণিজ্যিক ছবিতে কখনওই দেখা যায়নি তাঁকে। ‘সাঁঝবাতি’ দিয়ে নতুন ভাবে নিজেকে প্রকাশ করছেন পাওলি দাম। নিউজ 18 বাংলার সঙ্গে আড্ডা জমালেন নায়িকা।

প্রশ্ন: এতোটা রুচিশীল সাজ। নিজেকে কী মানাবে সেটা বোঝা। স্টাইলিস্ট অ্যাপোয়েন্ট করেছেন না সবটা নিজেরই ভাবনা?

পাওলি: স্টাইলিস্ট রয়েছে বইকী। তবে আমি তাঁকে বলে দিই, আমি কেমন লুক চাইছি। যে কোনও অনুষ্ঠানে শাড়ি পরতেই ভালোবাসি। তাঁর মধ্যে যতটা নতুনত্ব আনা যায়।

প্রশ্ন:  গ্লো দেখে মনে হচ্ছে পাওলি দামের দাম্পত্য জীবন দারুণ কাটছে?

পাওলি: কই আর দারুণ। লং ডিস্টেন্সই তো। কাজের জন্য আমি বেশির ভাগ কলকাতাতেই থাকি। আসামে কমই যাওয়া হয়। কেরিয়ারটাও তো ইম্পর্টেন্ট। আপাতত আনন্দে থাকার অন্য একটা কারণ রয়েছে।

প্রশ্ন: সেটা কী?

পাওলি: ‘সাঁঝবাতি’। এরকম একটা ছবির অংশ হতে পেরে যে কী খুশি হয়েছি, তা বলে বোঝাতে পারবো না।

প্রশ্ন: পাওলি তো বেশির ভাগ অন্য ধারার ছবি করে, মেনস্ট্রিম চরিত্র করলেন, তাই কি খুশি?

পাওলি: কিন্তু শুধমাত্র ছবিতেই আমি সিরিয়াস। বাস্তব জীবনে আমি মোটেও গম্ভীর নই। সকলে ভাবে ছবির আমি-ই, রিয়্যাল আমি। সেটা ঠিক নয় ৷ অসম্ভব মজা করতে ভালবাসি। অন্য দিকে দেব আবার ভীষণ কমার্শিয়াল নায়ক। আমাদের দু’জনকে একেবারে অন্য রকম ভাবে পর্দায় এনেছেন লীনাদি। আমার চরিত্র ‘ফুলি’ প্রচুর কথা বলে। এর আগে স্ক্রিনে আমি এত কথা বলার সুযোগ কখনও পাইনি। (হাসি)

প্রশ্ন: এই ছবিতে তো নাচতেও দেখা যাচ্ছে আপনাকে। যাঁকে একেবারে বলে ভাসান ডান্স।

পাওলি: একটা সুযোগ পেয়েছি নাচার, সেটা কি ছাড়া যায়? ব্যক্তিগত জীবনে আমি ভীষণ নাচতে ভালবাসি। এটা তেমন কেউ জানে না, কারণ ছবিতে সেরকম সুযোগ আসেনি। আর ভাসানের গানটার ব্যাপারে আরও একটা কথা বলবো। কোরিওগ্রাফার বলেছিল ‘ফ্রি ডান্স করো’। সে অর্থে কোনও স্টেপ ছিল না।

vlcsnap-2019-12-21-16h53m07s208

 প্রশ্ন: দেবও তো দারুণ নাচে।

পাওলি: একদম। ভাবছিলাম ওর সঙ্গে ম্যাচ করতে পারব কি না। যেটা হল, একেবারে দারুণ। এক কথা বলি, আমাকে এক ভাবে দেখে এসেছে দর্শক। আর দেবকে যেভাবে দেখে এসেছে, সেভাবে একেবারেই পাবে না আমাদের। দু’জনই নিজেকে ভেঙেচুরে অন্য কিছু সৃষ্টি করেছি। দেব-পাওলি জুটি সারপ্রাইজ করবে।

প্রশ্ন: ছবিতে প্রচণ্ড ঝগড়া করছেন আপনারা?

পাওলি: ‘ফুলি’ আর ‘চাঁদু’ ঝগড়া করছে, খুঁনসুটি করছে। ওঁদের মধ্যে অসম্ভব একটা কেমিস্ট্রি রয়েছে। চরিত্র দু’টোর গ্রাফ রয়েছে। লোকজন বলছে দেব-পাওলির জুটিটা ভাল লাগছে, সেটা আমোদ দিচ্ছে।

 প্রশ্ন: ছবির বাইরে দেব-এর সঙ্গে বন্ধুত্ব কতোটা জমলো ?

পাওলি: ওঁ খুবই মার্জিত, ভদ্র। ওঁ কমার্শিয়াল নায়ক ঠিকই। কিন্তু আমি কাছ থেকে দেখেছি ওঁ ‘চাঁদু’ করার জন্য কতটা খেটেছে। দেব ভাল কাজ করতে চায়। আর তার জন্য যতটা প্রয়োজন তার থেকে বেশি পরিশ্রম ও করে থাকে। এমনিতে সরল কিন্তু সবার পিছনে লাগে। (হাসি)। ও মানুষটা বড় ভাল।

প্রশ্ন: সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মতো একজন প্রবীন অভিনেতাও রয়েছে। কী শিখলেন ওঁর কাছ থেকে?

পাওলি: ‘অরণি তখনই’ পর এটা ওঁর সঙ্গে দ্বিতীয় কাজ। ওঁর সঙ্গে কাজ করার জন্য মুখিয়ে থাকি। অভিনেতার কাছ থেকে তো বটেই, ব্যক্তি সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের কাছ থেকেও অনেক কিছু শেখার রয়েছে। তাঁর জীবনের কাজের অভিজ্ঞতা। ৬০ বছর পরও এখনও যা এনার্জি আমার তা নেই। উনি আমার আইডল।​

First published: 05:36:19 PM Dec 21, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर