corona virus btn
corona virus btn
Loading

সিনেমায় অভিনয় খানিকটা হোটেলের ছাদে বসে সমুদ্র দেখা, থিয়েটারে অভিনয় সমুদ্রে নেমে সমুদ্র দেখা:ব্রাত্য বসু

সিনেমায় অভিনয় খানিকটা হোটেলের ছাদে বসে সমুদ্র দেখা, থিয়েটারে অভিনয় সমুদ্রে নেমে সমুদ্র দেখা:ব্রাত্য বসু
  • Share this:

দেবপ্রিয় দত্ত মজুমদার

#কলকাতা: জুমেলির পর বহমান। অনুমিতা দাশগুপ্তর ছবিতে বার বার উঠে আসে সমকালীন সমাজের কথা। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়-অপর্ণা সেন-এর মতো জুটিকে পর্দায় ফেরত আনা তো বটেই। তার সঙ্গে ব্রাত্য বসু ও অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়কেও স্বামী-স্ত্রীর ভূমিকায় কাস্ট করে নজর কেড়েছেন অনুমিতা। ব্রাত্য-অর্পিতা নিজেদের জুটি বলতে নারাজ। তাঁরা ছবির চরিত্র সুব্রত-জয়িতাই হয়ে উঠতে চান।

সমাজের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে সিনেমায় বদল আসছে। দর্শকের রুচি হচ্ছে ভিন্ন। স্বাদ বদলাতেই অনুমিতা দাশগুপ্তর ছবিতে এই অন্যরকম কাস্টিং, মনে করেন অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়ের। ‘ফটোগ্রাফ’,‘বধাই হো’র মতো ছবির চরিত্রগুলোকে গ্রহণ করার অভ্যাস বাঙালি দর্শকের তৈরি হয়েছে বলেই মত দুই অভিনেতা।

সুব্রত শিক্ষিত নাগরিক হয়েও মায়ের প্রেম মেনে নিতে পারে না। অথচ পত্রবধূ জয়িতা মর্যাদা দিতে পারে শাশুরির প্রথম প্রেমের কাছে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছাকে। ব্রাত্য বসুর দাবি, শিক্ষিত নাগরিকের মধ্যেও দৃষ্টিভঙ্গীর পার্থক্য থাকতেই পারে। ধর্ম বা সম্প্রীতির কথা চোেখ আঙুল দিয়ে না দেখানো নেই। তবে ছবির ট্রেলরেই বোঝা গিয়েছে ঠিক কোন কারণের জন্য এই সময়ে দাঁড়িয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই ছবি। যা মানছেন ব্রাত্য-অর্পিতাও। বই লেখা, নাট্যকার, অভিনেতা, নানান ভূমিকায় সপ্রিতভ ব্রাত্য। মঞ্চের অভিনয়ের সঙ্গে সিনেমার তুলনা টানতে চান না তিনি। তাঁর কথায়, সিনেমার অভিনয় খানিকটা হোটেলের ছাদে বা বারান্দায় বসে সমুদ্র দেখা। আর থিয়েটারের অভিনয় সমুদ্রে নেমে সমুদ্র দেখা।

অর্পিতা, সৌমিত্র ও অপর্ণা সেনের সঙ্গে কাজ করতে পেরে উচ্ছ্বসিত ব্রাত্য। রিনাদির সঙ্গে কাজ করতে পারার জন্য পরিচালকের কাছে বিশেষ ভাবে ঋণী তিনি, তাও জানাতে ভুললেন না অভিনেতা।

Published by: Pooja Basu
First published: November 28, 2019, 10:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर