‘গরু রান্না করতে পারি’, বলায় দেবলীনা’কে কদর্য আক্রমণ, মুখ খুললেন স্বামী তথাগত

‘গরু রান্না করতে পারি’, বলায় দেবলীনা’কে কদর্য আক্রমণ, মুখ খুললেন স্বামী তথাগত
দেবলীনার এই মন্তব্যের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় কদর্য., নোংরা, অশ্লীল আক্রমণ । নিম্নরুচির ছবির সঙ্গে দেবলীনার মুখ বসিয়ে জঘন্যভাবে ট্রোল করা হয় তাঁকে ।

দেবলীনার এই মন্তব্যের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় কদর্য., নোংরা, অশ্লীল আক্রমণ । নিম্নরুচির ছবির সঙ্গে দেবলীনার মুখ বসিয়ে জঘন্যভাবে ট্রোল করা হয় তাঁকে ।

  • Share this:

    #কলকাতা: সোশ্যাল মিডিয়া আর ধর্মীয় গোঁড়ামি । এই দুই বস্তু এক জায়গায় হলে তা যে কতটা ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করতে পারে তার প্রমাণ আগেও বহুবার দেখেছেন দেশবাসী । আবারও সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হল সম্প্রতি । শ্লীলতা, সম্মান, ভদ্রতার মতো শব্দগুলো মানুষ দিন দিন যে ভাবে ভুলতে বসেছে, তাতে আগামী দিনে আমরা কোথায় গিয়ে দাঁড়াব তা সম্ভবত এ বার ভাবার সময় এসেছে । আজকাল বহু সময়ই নীতি পুলিশদের বাড়বারন্ত নজরে পড়ছে সকলের । ধর্ম, আচার, পোশাক, রুচি, খাওয়া-দাওয়া, স্বাধীনতা...সব বিষয়েই কিছু গোষ্ঠীর সম্মিলিত চোখ রাঙানি, হুমকি, ভয় দেখানো, ট্রোল করার মতো বিষয়গুলো যেন জলভাত হয়ে দাঁড়াচ্ছে ।

    এ বারে বিফ রান্নার কথা বলায় কাঠগোড়ায় দাঁড় করানো হল টলি-অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত মুখোপাধ্যায়কে । সম্প্রতি একটি বাংলা নিউজ চ্যানেলের তরফে আয়োজিত টক-শোয়ে এসে দেবলীনা বিফ রান্না প্রসঙ্গে কিছু মন্তব্য করেছিলেন । গায়ক-পরিচালক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়ের কথার প্রসঙ্গে তিনি জানান যে, তিনি নিজে নিরামিষাশী হলেও প্রয়োজনে নবমীর দিন অনিন্দ্যর বাড়ি গিয়ে বিফ রান্না করে দিতে পারেন । কারণ রান্না তিনি ভালই করেন । আর খাওয়া নিয়ে তাঁর কোনও ছুতমার্গ নেই ।

    দেবলীনার এই মন্তব্যের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় কদর্য., নোংরা, অশ্লীল আক্রমণ । নিম্নরুচির ছবির সঙ্গে দেবলীনার মুখ বসিয়ে জঘন্যভাবে ট্রোল করা হয় তাঁকে । এরপরেই আসরে নামতে বাধ্য হন দেবলীনার স্বামী, অভিনেতা তথাগত মুখোপাধ্যায় । তিনি লেখেন, হিন্দু ধর্ম মতে শুয়োর বা বরাহ স্বয়ঁ বিষ্ণুর অবতার হওয়া সত্ত্বেও যখন সেটা আমরা খাই... তখন কেউ কিছু বলতে আসেন না । তাঁর বাড়িতে মুসলিম বন্ধুরাও সানন্দে শুয়োর খেয়েছেন, কারণ তাঁরা খাওয়ার জন্য বাঁচেন না । বাঁচার জন্য খান । শুধু তাই নয়, তথাগত বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, গায়ক ও অভিনেতা বাবুল সুপ্রিয় এক ইন্টারভিউর লিঙ্ক দিয়ে বলেন, বাবুলও কলেজ লাইফে বহুবার বিফ বা গরুর মাংস খেয়েছেন, তা নিয়ে কিন্তু কোনও প্রশ্ন করা হয়নি যে উনি কেন গোমাংস খাওয়া নিয়ে চ্যানেলের শোতে বক্তব্য রেখেছেন, মাথায় রাখতে হবে তখন উনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।


    খাবার,পলিটিক্স,গনধর্ষনের হূমকি,আর আমার ভয়...আমি খুব খুব খুব ভয় পেয়ে আছি তো, তাই লেখার শুরুতেই জানাই আমার বাড়িতে...Posted by Tathagata Mukherjee on Monday, 18 January 2021

    কিন্তু দেবলীনার ওই মন্তব্যের পরে অন্য আর একটি বৈদ্যুতিন চ্যানেল আয়োজিত টো শোয়ে এসে বিজেপি কর্মী পেশায় উকিল তরুনজ্যোতি তিওয়ারি দেবলীনাকে এ বিষয়ে কথা বলার জন্য হূমকি দেন এবং আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার থ্রেট করেন । না উনি এতেই ক্ষান্ত হননি । নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে পোস্ট করে দেবলীনার বিরুদ্ধে সামাজিক হিংসা ছড়ানোর প্রস্তাবনাও রেখেছেন, তার স্ক্রিনশটও তথাগত শেয়ার করেছেন তাঁর পোস্টে।

    Published by:Simli Raha
    First published: