corona virus btn
corona virus btn
Loading

বর্ধমানে বসছে মহানায়ক উত্তমকুমারের পূর্ণাঙ্গ মূর্তি, খুশি বাসিন্দারা

বর্ধমানে বসছে মহানায়ক উত্তমকুমারের পূর্ণাঙ্গ মূর্তি, খুশি বাসিন্দারা
ফাইল ছবি

বর্ধমান শহরে উত্তম-সুচিত্রার মূর্তি বসানো পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল আগেই। শহরে উত্তম সুচিত্রার বিশেষ ভক্ত হিসেবে পরিচিত ছিলেন শরৎ কোনার।

  • Share this:

#বর্ধমান: মহানায়ক উত্তমকুমারের মূর্তি বসতে চলেছে বর্ধমানে। বর্ধমান শহরের রথতলা মাঠে বসবে বাঙালির হৃদয়ের একচ্ছত্র মহানায়ক উত্তমকুমারের পূর্ণাবয়ব প্রতিকৃতি। বর্ধমানের কাঞ্চন উৎসব কমিটি এই মূর্তি বসানো পরিকল্পনা নিয়েছে। এলাকার বাসিন্দারা দীর্ঘদিন ধরেই কাঞ্চন উৎসব কমিটির কাছে বাংলা চলচ্চিত্র বিরল প্রতিভা উত্তম কুমারের মূর্তি বসানো আবেদন জানিয়ে আসছিলেন। তাঁদের মতামতকে গুরুত্ব দিয়ে এই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে বলে উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন।

বর্ধমান শহরে উত্তম-সুচিত্রার মূর্তি বসানো পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল আগেই। শহরে উত্তম সুচিত্রার বিশেষ ভক্ত হিসেবে পরিচিত ছিলেন শরৎ কোনার। তিনি নিয়মিত বাড়িতে অন্যান্য দেবদেবীদের সঙ্গে উত্তমকুমারের পুজো করতেন। তাঁর প্রতিটি ঘরে উত্তম কুমার বিভিন্ন ছবি বাঁধানো রয়েছে।  উত্তম কুমারের পরিবারের বর্তমান সদস্যদের সঙ্গে শরৎ কোনারের বিশেষ যোগাযোগ ছিল। তিনি রাজ্য সরকারের কাছ থেকে উত্তম-সুচিত্রার মূর্তি বসানো অনুমতিও আদায় করেছিলেন। বর্ধমান জেলা শাসকের অফিস সংলগ্ন সিধো কানহো ময়দানে সেই মূর্তি বসানো প্রস্তাব দিয়েছিলেন তিনি। সম্প্রতি তিনি প্রয়াত হয়েছেন। সেইসঙ্গে উত্তম-সুচিত্রার মূর্তি বসানো প্রচেষ্টা স্থগিত হয়ে গিয়েছে। তারই মধ্যে এবার উত্তমকুমারের মূর্তি বসানো সিদ্ধান্ত নিল কাঞ্চন উৎসব কমিটি।

কাঞ্চন উৎসব কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বর্ধমান শহরের রথতলায় আগামী 3 সেপ্টেম্বর একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাঙালি হৃদয়ের নয়নের মনি মহানায়ক উত্তমকুমারের পূর্ণাবয়ব প্রতিকৃতির আবরণ উন্মোচন হবে। সেই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন, উত্তমকুমারের পুত্রবধূ মহুয়া চট্টোপাধ্যায়। চুরানব্বই তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মূর্তি প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে তাঁকে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানোর উদ্দেশ্যে এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে বলে কাঞ্চন উৎসব কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

মহানায়ক উত্তম কুমারের চলচ্চিত্রে অভিনয়ের সঙ্গে বর্ধমান শহর বা পূর্ব বর্ধমান জেলার তেমন যোগ নেই। তবে তিনি বারে বারে এসেছেন। এই জেলার গ্রামে এসে বন্ধুর বাড়িতে দিন কাটিয়েছেন। শক্তিগড়ের ল্যাংচা তাঁর অন্যতম প্রিয় মিষ্টি ছিল। উত্তমকুমারের চলচ্চিত্রে এখনও মজে রয়েছে বাঙালি। বর্ধমান তার ব্যতিক্রম নয়। বর্ধমান শহরের রথতলা কাঞ্চননগর এলাকার বাসিন্দারা মহানগর উত্তমকুমারের মূর্তি প্রতিষ্ঠার আর্জি জানিয়েছিলেন। তাদের সেই আবেগকে গুরুত্ব দিয়েই এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে বলে কাঞ্চন উৎসব কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Shubhagata Dey
First published: September 2, 2020, 4:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर