সারাজীবন এই সেলেবের সঙ্গেই সম্পর্কে জড়িয়ে থাকতে চান স্বস্তিকা

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় ৷ ছবি: স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলের সৌজন্যে ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: বৈবাহিক সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে এসেছেন ১১ বছর হয়ে গেল ৷ এরপর নানা সময়ে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের নাম জড়িয়েছে অনেকের সঙ্গে ৷ কখনও শোনা গিয়েছে তিনি সম্পর্কে জড়িয়েছেন জিৎ-এর সঙ্গে ৷ তা টেকেনি বেশি দিন ৷ টলি-টাউনে কান পাতলে শোনা যায় মুম্বইয়ের বাসিন্দা গায়ক অভিনেতা দিব্যেন্দু কলকাতায় এসে স্বস্তিকার প্রেম পড়েন। সুব্রত সেনের ছবি নন্দিনী-এর শুটিং করতে গিয়ে দু’জনের সম্পর্ক গভীর হয়। যদিও তা বালির বাঁধ হয়ে দাঁড়িয়েছিল ৷ সেই সম্পর্ক ভাঙাতে বেশি দিন সময় লাগেনি ৷ যদিও এই সম্পর্কগুলো নিয়ে মিডিয়ার সামনে চুপই থেকেছেন সবাই ৷

    প্রকাশ্যে সম্পর্ক নিয়ে খোলামেলা হয়েছিলেন দীর্ঘদিনের বন্ধু পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়়িয়ে ৷ পরমব্রত ব্রিস্টলে ফিল্ম কোর্স করতে চলে গেলে দু’জনের মধ্যে দূরত্ব বাড়ে। ইতিমধ্যে পরমের নতুন প্রেমিকা ইকার আবির্ভাব।

    swas2

    পরমের সঙ্গে সম্পর্কে ছেদের পর স্বস্তিকা জড়িয়ে পড়েন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে ৷ দু’জনকে একাধিক জায়গাতেই ঘোরাফেরা করতে দেখা গিয়েছিল সে সময় ৷ পার্টি থেকে ডাইনিং রুম কোথাও দু’জন দু’জনকে নাকি কাছ ছাড়া করতেন না। কিন্তু সে সম্পর্কও দীর্ঘস্থায়ী হয়নি ৷ সময় এগোয় ৷ এবার স্বস্তিকার জীবনে আসেন পরিচালক সুমন মুখোপাধ্যায় ৷ হঠাৎই দু’জনের মধ্যে বচসার কারণে অভিনেত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা সুমন-স্বস্তিকার প্রেমের কাহিনী প্রকাশ্যে চলে আসে। বিভিন্ন সংবাদপত্র দু’জনের মধ্যে পারস্পরিক চাপানউতোর থেকেই স্বস্তিকার নিজেকে শেষ করে দেওয়ার রিপোর্ট লিখলেও ঘটনার পর থেকে আরও বেশি ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দু’জনকে বিভিন্ন জায়গায় দেখা যেতে থাকে।

    তবে এদের মধ্যে কারও সঙ্গে সাত সাতটি বছর ধরে সম্পর্কে থাকেননি স্বস্তিকা ৷ কিন্তু এমন একটি মানুষ রয়েছেন যার সঙ্গে সাত বছর ধরে গভীর সম্পর্ক রয়েছে এই অভিনেত্রীর ৷ রয়েছে এক গভীর বন্ধুত্ব ৷

    যদিও তিনি কোনও পুরুষ নন ৷ তিনি একজন মহিলা ৷ আবার নায়িকাও বটে ৷ স্বস্তিকার সেই বন্ধুটি হলেন পার্নো মিত্র ৷ এক নায়িকার সঙ্গে অন্য নায়িকার সম্পর্ক ৷ এ যেন সোনার পাথর বাটি-এই কথাই ভাবছেন তো? ঠিক এই কাজটিই করে দেখিয়েছেন স্বস্তিকা-পার্নো ৷ আর তাই তো একটি ট্যুইটে স্বস্তিকা লিখেছেন,‘‘ যদি কোনও বন্ধুত্ব সাত বছর টিকে যায়। তাহলে বুঝতে হবে সারা জীবনের জন্য এই বন্ধুত্ব। তুমি সারা জীবন আমার সঙ্গে জড়িয়ে থাকবে।”

    First published: