• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • SUDIPA CHATTERJEE IS TROLLED AFTER POSTING A PHOTOGRAPH OF A SAREE CREATED BY HERSELF ARC

Sudipa Chatterjee: ‘দাম বলতে আপত্তি কেন?’ তাঁর সৃষ্টি বেনারসির ছবি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করে ট্রোলড সুদীপা

সুদীপা চট্টোপাধ্যায়, ছবি-ফেসবুক

শাড়ির ছবি দিয়ে আবারও ট্রোলড সুদীপা চট্টোপাধ্যায় (Sudipa Chatterjee) ৷ বুধবার তিনি একটি বহুবর্ণের বেনারসির ছবি শেয়ার করেন ফেসবুকে ৷

  • Share this:

    কলকাতা : শাড়ির ছবি দিয়ে আবারও ট্রোলড সুদীপা চট্টোপাধ্যায় (Sudipa Chatterjee) ৷ বুধবার তিনি একটি বহুবর্ণের বেনারসির ছবি শেয়ার করেন ফেসবুকে ৷ ক্যাপশনে লেখেন, সাড়ে চার মাস ধরে ৭ জন শিল্পী মিলে বুনেছেন শাড়িটি ৷ আসল জরি দিয়ে তিল তিল করে তৈরি করা হয়েছে ৷ ব্যবসার শুরুতেই যে এই শাড়ি তিনি তৈরি করতে পেরেছেন, তাতেই তাঁর আনন্দ ৷ সুদীপার কথায় দেশের মাটিতে খুব কম তাঁতিই এই সৃষ্টি করতে পারবেন ৷

    নেটিজেনরা আক্রমণ করেছেন গঙ্গার হাওয়ায় শুকোনো রেশমসুতো নিয়ে ৷ তাঁর পোস্টে সুদীপা লিখেছিলেন বেনারসের গঙ্গার হাওয়ায় শুকোনো, রেশম সুতোর জেল্লাই আলাদা ৷ নেটিজেনদের প্রশ্ন, গঙ্গার শুকনো বাতাসে কী বিশেষত্ব আছে?

    সুদীপা কেন শাড়িটির দাম বলেননি, সে নিয়েও নেটিজেনদের অসন্তোষ ৷ পোস্টে সুদীপা লিখেছেন, ‘‘দামের কথা বলে লাভ নেই৷ এ এক অমূল্য সৃষ্টি’’৷ নেটিজেনদের কাছে তাঁর অনুরোধ, ‘দাম জানতে চেয়ে লজ্জা দেবেন না৷’’ এখানেই আপত্তি নেটিজনদের ৷ তাঁদের প্রশ্ন, শাড়ি কি বিক্রির জন্য নয়? তাহলে সুদীপা দাম বলতে চান না কেন? কোনও নেটিজেনের মত, সুদীপা তো বিত্তবানদের বিশেষ গ্রুপেই পোস্ট করতে পারতেন তাঁর শাড়ির ছবি ৷

    এর আগেও তাঁর শাড়ির ব্যবসা সংক্রান্ত পোস্টে বক্রোক্তির শিকার হয়েছেন সুদীপা ৷ কিছুদিন আগে তিনি অনুষ্কা শর্মার বিয়ের রিসেপশনে ছবি শেয়ার করে জানান, অনুষ্কার পরনের মতো শাড়ি তিনিও তৈরি করেছেন ৷ তাঁর আশ্বাস, এই অনুষ্কা-শাড়ি সাধারণের আয়ত্তের মধ্যেই থাকবে ৷ সে সময়েও তীব্র কটূক্তি ও কটাক্ষ উড়ে এসেছিল তাঁর উদ্দেশে ৷

    অবশ্য সুদীপা বরাবরই ট্রোলিং নস্যাৎ করে এগিয়ে গিয়েছেন জীবনের পথে ৷ এ বারও তার ব্যতিক্রম হলেন না ৷ কোনও ট্রোলিংয়েরই উত্তর তিনি দেননি ৷ উপেক্ষা করেছেন ৷ ট্রোলারদের পাশাপাশি সুদীপার পাশে সবসময়ই আছেন শুভার্থীরা ৷ এ বারও অনেকেই বাহবা জানিয়েছেন তাঁর সৃষ্টিকে ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: