Srabanti Chatterjee : ‘ছেলের কথা ভেবেছেন? ও কার সঙ্গে ফাদার্স ডে পালন করবে?’ পিতৃদিবসে ট্রোলড নায়িকা

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, ছবি-ফেসবুক

ট্রোলিং আর পিছু ছাড়ছে না শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের (Srabanti Chatterjee) ৷ ফাদার্স ডে-এর ছবি দিয়েও কটূক্তির শিকার অভিনেত্রী ৷

  • Share this:

    কলকাতা : ট্রোলিং আর পিছু ছাড়ছে না শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের (Srabanti Chatterjee) ৷ ফাদার্স ডে-এর ছবি দিয়েও কটূক্তির শিকার অভিনেত্রী ৷ রবিবার পিতৃদিবসে একটি ছবি শেয়ার করেছিলেন তিনি ৷ সেখানে দেখা গিয়েছে বাবার সঙ্গে শ্রাবন্তীকে ৷ ছবির ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, তাঁকে বাবা হিসেবে পেয়ে তিনি ভাগ্যবান ৷ বাবার কাছ যা শিক্ষা পেয়েছে, কোনওদিন তিনি ভুলবেন না ৷

    কিন্তু গত বেশ কিছু পোস্টের মতো এ ক্ষেত্রেও শ্রাবন্তীকে কটাক্ষ শুনতে হয়েছে তাঁর একাধিক বিবাহিত সম্পর্ক নিয়ে ৷ এ বার টেনে আনা হয়েছে তাঁর ছেলেকেও ৷ এক নেটিজেনের মন্তব্য, শ্রাবন্তী নিজে তো ফাদার্স ডে পালন করছেন ৷ কিন্তু তিনি কি একবারও তাঁর ছেলের কথা ভেবেছেন ? তাঁর ছেলে কার সঙ্গে ফাদার্স ডে পালন করবে? শ্রাবন্তীকে প্রশ্ন নেটিজেনদের ৷ অনেকের আবার অভিযোগ, তিনি নিজের পাশাপাশি ছেলেরও ক্ষতি করছেন ৷

    শ্রাবন্তীর প্রথম স্বামী ছিলেন পরিচালক রাজীব কুমার বিশ্বাস ৷ তাঁদের ১৩ বছরের দাম্পত্য শেষ হয় ২০১৬ সালে ৷ এর পর তিনি বিয়ে করেন মডেল তথা আলোকচিত্রী কৃষ্ণণ ব্রজকে ৷ সে বিয়ে ছিল মাত্র ১ বছরের জন্য ক্ষণস্থায়ী ৷ বিচ্ছেদের পর ২০১৯ সালে রোহন সিংকে বিয়ে করেন শ্রাবন্তী ৷ রোহন-শ্রাবন্তী দাম্পত্যের ফাটলও শিরোনাম হয়েছে দীর্ঘ দিন ৷ কিন্তু বিবাহবিচ্ছেদে বাধা এসেছে রোশনের তরফেই ৷

    কিন্তু শ্রাবন্তীকে ঘিরে নতুন সম্পর্কের গুঞ্জন কিন্তু বন্ধ হয়নি ৷ শোনা যাচ্ছে, ব্যবসায়ী অভিরূপ নাগ চৌধুরী নাকি তাঁর বর্তমান প্রেমিক ৷ সম্প্রতি অভিরূপের জন্মদিনের ছবিও প্রকাশিত হয়েছে সংবাদমাধ্যমে ৷ শ্রাবন্তীর বাড়িতে পালিত হয় অভিরূপের জন্মদিন ৷ পরিবারের সকলের সামনেই অভিরূপকে হিরে বসানো আংটি উপহার দেন শ্রাবন্তী ৷

    সেই আংটির ছবি সামাজিক মাধ্যমে দিয়ে অভিরূপ লিখেছিলেন ওটা তাঁর জীবনে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ মানুষের কাছ থেকে পাওয়া উপহার ৷ নাম না করে শ্রাবন্তীকে ধন্যবাদও জানান তিনি ৷ তাঁদের প্রেমের গুঞ্জন যত তীব্র হচ্ছে, তত জোরালো হচ্ছে শ্রাবন্তীকে ঘিরে ট্রোলিংও ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: