Sonu Sood: আগামী প্রধানমন্ত্রী সোনু সুদ! অভিনেতার পাশে রয়েছেন প্রিয়াঙ্কা

photo source collected

সোনু সুদের এই ভিডিও ট্যুইটে বহু নেটাগরিক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। সেই ভিডিওতেই একজন অনুরাগী লিখেছেন, 'সোনু সুদের আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়া উচিত।' সেই কমেন্টে সমর্থন জানিয়েছেন অনেকেই।

  • Share this:

#মুম্বই: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ কেড়ে নিয়েছে বহু প্রাণ। বহু শিশু হারিয়েছে তাঁদের বাব-মাকে। সে সব গুণতে বসলে হাতের কড় কম পড়বে, গুণে শেষ করা যাবে না। ছোট্ট বয়েসেই যারা একূল-ওকূল হারিয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছে, সেই শিশুদের জন্য মসিহা হয়ে এগিয়ে এসেছেন সোনু সুদ (Sonu Sood) ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাস (Priyanka Chopra Jonas)। করোনার গ্রাসে যে সমস্ত শিশুরা তাঁদের বাবা-মাকে হারিয়েছে তাদের শিক্ষার দায়িত্ব কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারকে নিতে হবে বলে ট্যুইটে আবেদন করেছিলেন সোনু সুদ। তাঁর সেই আবেদনকে সমর্থন করেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা। সোনুর এই ট্যুইট সামনে আসতেই দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তাঁকে চাইছেন অভিনেতার অনুগামীরা। সোনুর এই ট্যুইটেকে সমর্থন করার জন্য অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কাকে অভিনেতা লিখেছেন, “তোমার সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ প্রিয়াঙ্কা, আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি আমরা সবাই মিলে এটা করে দেখাব”। এর সঙ্গে একটি হাত জোড় করা ইমোজি রাখেন অভিনেতা।

প্রিয়াঙ্কা তাঁর জবাবে ট্যুইটে লম্বা চওড়া লেখা লেখেন। গোটা লেখা জুড়ে সোনুর কাজের প্রশংসা করেছেন তিনি। “আমার সহকর্মী @sonu_sood একাধারে দার্শনিক অন্যদিকে সমাজসেবী, তিনি ভাবেন এবং এগিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রাখেন। মহামারীর আমাদের অনেক ভয়াবহ কাহিনি সামনে এনেছে, বহু শিশু তাদের বাবা-মা হারিয়েছে, তাদের পড়াশোনা একেবারে থমকে যাবে এবার, তাদের ভবিষ্যৎ কী হতে পারে? সেই চিন্তা এখন থেকেই সোনু সুদ করছে। আমি অনুপ্রাণিত হয়েছি ওর এই ভাবনাতে। সোনুর পরামর্শ রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকার উভয়েরই বিবেচনা করা উচিত, এই বিপুল সংখ্যক শিশুদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে তাদের পড়াশোনার দায়িত্ব প্রশাসনকেই নিতে হবে”।

সোনু সুদের এই ভিডিও ট্যুইটে বহু নেটাগরিক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। সেই ভিডিওতেই একজন অনুরাগী লিখেছেন, 'সোনু সুদের আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়া উচিত।' সেই কমেন্টে সমর্থন জানিয়েছেন অনেকেই।

আরও অনেকেই লিখেছেন, দেশের এই পরিস্থিতিতে সোনু সুদের মতোই একজন মানুষের প্রধানমন্ত্রী হওয়া প্রয়োজন।

কেন্দ্রীয় সরকার যে একেবারে চুপ করে বসে আছে এমনটা নয়। কেন্দ্রীয় নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি (Smriti Irani) অসহায় শিশুদের পাশে দাঁড়াতে বড় নির্দেশ দিয়েছেন। অসহায় শিশুদের সাহায্য করার জন্য হেল্পলাইন ১০৯৮ চালু করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট রাজ্যের প্রশাসন অথবা সেই জেলার শিশুকল্যাণ কমিটির কাছে পুরো বিষয়ের উপর নজর রাখার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

Published by:Piya Banerjee
First published: