• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • SHOLAY WHEN DHARMENDRA REVEALED THAT AMITABH BACHCHAN GOT CASTED IN THE FILM BECAUSE OF HIM TC SANJ

'বেচারাকে কাজটা দিয়ে দাও', ধর্মেন্দ্রর সুপারিশেই নাকি 'শোলে'-তে সুযোগ পেয়েছিলেন অমিতাভ?

বাস্তবেও বন্ধু জয়-বীরু

ছবির অন্যতম আইকনিক মুখ্যচরিত্র জয়ের (Jai) রোলে অমিতাভ বচ্চন (Amitabh bachchan) নয়, শত্রুঘ্ন সিনহার (Shatrughan Sinha) অভিনয় করার কথা ছিল।

  • Share this:

#মুম্বই: হিন্দি তথা ভারতীয় চলচ্চিত্র দুনিয়ার অন্যতম সিনেমা হল শোলে (Sholey)। জয়-বীরুর দোস্তি থেকে শুরু করে বাসন্তী (Basanti), গব্বর(Gabbar) প্রতিটি চরিত্র আজও সিনেপ্রেমীদের মনের আলাদা জায়গায় রয়েছে। এখনও প্রতিটি ডায়লগ সবধরনের দর্শকের মুখে মুখে শোনা যায়। তবে গোটা সিনেমা যাঁরা এখনও দর্শকদের মনের মণিকোঠায় জীবন্ত করে রেখেছেন, তাঁরা হলেন ছবিটির সঙ্গে যুক্ত অভিনেতা, অভিনেত্রীর অভিনয় সহ সমস্ত কলাকুশলী ও নির্মাতাদের পরিশ্রম।

তবে আপনি কি জানেন এই ছবির অন্যতম আইকনিক মুখ্যচরিত্র জয়ের (Jai) রোলে অমিতাভ বচ্চন (Amitabh bachchan) নয়, শত্রুঘ্ন সিনহার (Shatrughan Sinha) অভিনয় করার কথা ছিল? আজ্ঞে হ্যাঁ, অনেকেই হয়তো এই কথাটি শুনেছেন। কিন্তু কেন বা কার জন্য শত্রুঘ্নর জায়গায় বিগ বি এই সিনেমায় কাস্ট হল, সেই ঘটনাই সম্প্রতি জানালেন শোলের বীরু (Veeru) অর্থাৎ ধর্মেন্দ্র (Dharmendra)। সম্প্রতি তিনি এই সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘আমি কখনই এই নিয়ে মুখ খুলতে চাইনি। কিন্তু যখন দেখলাম, স্বয়ং অমিতাভ এই বিষয়ে লুকোছাপা রাখতে চাইছেন না, তখন আমারও ওই ঘটনা নিয়ে চুপ থাকার দরকার পড়ে না’।

বর্ষীয়ান অভিনেতা বলেন, ‘এই ছবিতে জয়ের চরিত্রে শত্রুঘ্ন সিনহার অভিনয় করার কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎই অমিতাভ একদিন আমার কাছে এসে কাজের জন্য অনুরোধ করেছিলেন। তারপর নির্মাতাদের কাছে অমিতাভের নাম সুপারিশ করা হয়। এই নিয়ে শত্রুঘ্ন আমায় প্রশ্নও করেছিলেন। আমি বলেছিলাম, কী করব বুঝতে পারছিলাম না। বেচারা আমার কাছে কাজের জন্য এসেছিল তাই ফিরিয়ে দিতে পারিনি’।

২০১৫ সালে এক প্রতিবেদনে অমিতাভ জানিয়েছিলেন, পরিচালক রমেশ সিপ্পি (Ramesh Sippi) ছবির জন্য একপ্রকার শত্রুঘ্নকে ফাইনাল করেই ফেলেছিলেন। কিন্তু পরে তিনি দেখেন, এই ছবিতে তিনটি বিশাল স্টার কাস্ট করা হচ্ছে, যাঁর ফলে তাঁদের মধ্যে ইগোর সমস্যা হতে পারে। এদিকে আনন্দ (Anand) ছবিতে অমিতাভে অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন তিনি। অন্যদিকে, ধর্মেন্দ্রর কাছে তিনিও এই শোলেতে অভিনয়ের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। সবমিলিয়ে এভাবেই জয়ের চরিত্রে ফাইনাল কাস্ট করা হয় অমিতাভ বচ্চনকে। তারপর বাকিটা ইতিহাস।

চলতি বছরের শুরুর দিকে শত্রুঘ্ন ইন্ডিয়ান আইডল অনুষ্ঠানে এসে বলেছিলেন, শুটিং সিডিউল সংক্রান্ত সমস্যার জন্য শোলের মতো ছবি তাঁর হাতছাড়া হয়। আসলে সেই সময় ক্রমাগত এমন ধরনের ছবিতে অভিনয় করছিলাম যেখানে দুটি নায়ক চরিত্র রয়েছে। তবুও শোলেতে অভিনয় করার ইচ্ছে ছিল, কিন্তু সময় না থাকার কারণে ফাইনাল করতে পারিনি। এর জন্য আফসোস যেমন রয়েছে, তেমনই আবার অত্যন্ত খুশি যে এই ছবির মাধ্যমে সকলের আইকন হয়ে উঠতে পেরেছিলেন অমিতাভ। যিনি আমার প্রিয় বন্ধুও বটে।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: