কোভিড ১৯ পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ, ফের শ্যুটিং শুরু করছেন সলমন খান!

কোভিড ১৯ পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ, ফের শ্যুটিং শুরু করছেন সলমন খান!

সে রকম ভাবে দেখতে গেলে বন্ধু বলে স্বীকার করে নিই না আমাদের কেউই!

সে রকম ভাবে দেখতে গেলে বন্ধু বলে স্বীকার করে নিই না আমাদের কেউই!

  • Share this:

#মুম্বই: সে রকম ভাবে দেখতে গেলে বন্ধু বলে স্বীকার করে নিই না আমাদের কেউই! কিন্তু যাঁদেরই বাড়িতে ড্রাইভাররা কাজ করেন মাসিক বেতনের ভিত্তিতে, তাঁরাই জানেন যে প্রয়োজনে বন্ধুরও আগে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন তিনিই! অন্য দিকে, ঠিক তেমন করেই, প্রিয় বন্ধুর চেয়েও অনেক বেশি সময় কেউ কাটিয়ে থাকেন ড্রাইভারের সঙ্গে। অন্তত সলমন খান তো বটেই! দিন নেই, রাত নেই, এ ছবির শ্যুটিং, সে ইভেন্টে হাজির দেওয়া- ড্রাইভার ছাড়া কি আর ঘড়ির কাঁটা ধরে সব করা সম্ভব?

কাজেই সেই ড্রাইভার যখন কোভিড ১৯ সংক্রমণের মুখে পড়েছিলেন, বেজায় ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন সলমন! ছবির রুপোলি পর্দার বাইরেও বেশ কিছু ক্ষেত্রে তাঁর কাজকর্ম একেবারে দাবাংয়ের মতো, কিন্তু ভাইরাসের সঙ্গে তো আর এঁটে ওঠা সম্ভব হয় না! তাই দেখতে দেখতে নিজেকে আর বাড়ির সবাইকে নিয়ে আইসোলেশনে চলে গিয়েছিলেন বলিউডের এই জনপ্রিয় নায়ক! বলা তো আর যায় না- এর মধ্যে যদি ভাইরাসের সংক্রমণ গ্রাস করে থাকে তাঁকেও! আর সেটা হলে তো বাড়ির অন্যদেরও ঝুঁকি থেকে যাচ্ছে! ফলে, মাঝখানে কয়েকটা দিন কাটল তুমুল উদ্বেগের মধ্যে দিয়ে। সে যেমন খানদানের, তেমনই ভক্তদেরও। পাশাপাশি কর্মজগৎ তো রয়েছেই, সেখানেও তো আর কম লোকের সংস্পর্শে আসেননি নায়ক। তবে শেষ পর্যন্ত ব্যাপারটা আশঙ্কার বদলে রূপান্তরিত হয়েছে আশ্বাসে। সম্প্রতি খান পরিবারের তরফে জানা গিয়েছে যে সলমন তো বটেই, পাশাপাশি তাঁর বাড়ির অন্য সদস্যদের কোভিড ১৯ পরীক্ষার রিপোর্টও নেগেটিভ এসেছে! ফলে আবার বিগ বস-এর শ্যুটিং শুরু হতে চলেছে। খবর বলছে যে আজ থেকেই শ্যুটিংয়ে যোগ দিয়েছেন সলমন। এর আগে প্রভু দেবা পরিচালিত রাধে: ইয়োর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই ছবির শ্যুটিং শেষ করেছিলেন সলমন। লকডাউনের পরে শ্যুটিং ফ্লোর স্যানিটাইজেশনের জন্য বাড়তি বন্দোবস্ত রাখা হয়েছিল। যদি কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েন, সে জন্য ছবির প্রযোজক সোহেল খান অ্যাম্বুল্যান্স এবং ডাক্তারদেরও সঙ্গে রেখেছিলেন। সেই সব পর্ব পেরিয়ে এসে সম্প্রতি যখন সলমনের ড্রাইভারের কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হলেন, সঙ্গত কারণেই চমকে উঠেছিলেন সবাই!
Published by:Akash Misra
First published:

লেটেস্ট খবর