Home /News /entertainment /
'করোনার বিরুদ্ধে এই লড়াইটা আমাদের চালিয়ে যেতে হবে': সাহেব ভট্টাচার্য

'করোনার বিরুদ্ধে এই লড়াইটা আমাদের চালিয়ে যেতে হবে': সাহেব ভট্টাচার্য

লকডাউনে আমাদের শহর, দেশ, বিশ্ব সবকিছুই অচল। সব যেন থমকে গিয়েছে হঠাৎ করে।

  • Share this:

#কলকাতা: লকডাউনে আমাদের শহর, দেশ, বিশ্ব সবকিছুই অচল। সব যেন থমকে গিয়েছে হঠাৎ করে। গৃহবন্দি সকলে। সকলেই অনিশ্চয়তায়। কী করে সব ঠিক হবে কারো জানা নেই। কবে হবে তাও জানা নেই। উদ্বেগে দিন গুনছেন আমজনতা থেকে নামজাদা সেলেব। সাহেব ভট্টাচার্যের গলায় মিললো একই চিন্তার আভাস। নিউজ 18 বাংলার সঙ্গে নিজের মনের কথা ভাগ করে নিলেন অভিনেতা। সকলকে বাড়িতে থাকার অনুরোধ করলেন সাহেব। সকলে ভালো থাকুক সেই কামনা করলেন তিনি।

সাহেব বললেন, 'লকডাউন ঘোষণার বেশ কয়েকদিন আগে আগে বেশ কয়েকদিন আগে আগে থেকেই নিজেকে বাড়িতে গৃহবন্দী করে ফেলেছি। ৩ মে পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। আমাদের সকলকে সংযত থাকতে হবে। লকডাউন শেষ হওয়ার আগে কোনভাবেই বাড়ি থেকে বেরোনো যাবে না বাড়ি থেকে বেরোনো যাবে না। আমি বুঝতে পারছি, যাঁরা দৈনন্দিন কাজে বের হন, তাঁরা যদি হুট করে বাড়িতে আটকা পড়ে যান আটকা পড়ে যান, তাহলে কেমন যেন দম বন্ধ লাগে। প্রাণ হারানোর চেয়ে নিজেকে এইটুকু কষ্ট দেওয়া সোজা। তাই কষ্টটা আমাদের সকলকে পেতে হবে। আমারও প্রাণ ছটফট করছে। অসুবিধা হচ্ছে, এভাবে আটকা পড়ে থাকতে। একটু অন্য রকম ভাবে সময় কাটাবার পথ খুঁজে বার করুন। কষ্টটা কমে যাবে।'

বাড়িতে বসে বিভিন্ন ছবি, নানা ওয়েব সিরিজ, দেখে, দেখে সিরিজ, দেখে, দেখে সময় কাটাচ্ছেন সাহেব। অভিনেতার সে অর্থে কোনও রেয়াজ করার উপায় নেই। তাই ভালো অভিনয় দেখে নিজেকে আরো উন্নত করার চেষ্টা করছেন তিনি। সাহেবের কথা, 'আমরা গোটা বছর আক্ষেপ করে থাকি আমাদের হাতে সময় নেই। সময় পেলে অনেক কিছু করে ফেলতাম। এখন যখন সময়টা মিলেছে তখন ভাবছি এত সময় কাটাবো কী করে? আমার মনে হয়, নতুন কিছু শেখার বা পুরোনো ভালো লাগাকে প্রশ্রয় দেওয়ার এটা একদম ঠিক সময়। গিটার শেখা হতে পারে, রান্না করা হতে পারে, গান গাওয়া হতে পারে। যেটা পছন্দ সেটা করুন। আমার ক্ষেত্রে, আমি দুটো নতুন জিনিস শুরু করেছি। বিভিন্ন অনলাইনে চ্যানেল দেখে নানা ধরনের রান্না করছি বাড়িতে। খুব তাড়াতাড়ি ভালো একজন সেফ হয়ে উঠবো আমার বিশ্বাস। এছাড়াও বাগান করার শখ হয়েছে আমার। বাড়ির ছোট্ট ব্যালকনিতে নানা ধরনের গাছ লাগিয়েছি। তাদের পরিচর্যা করি। বাগানের গাছে ফুল ফুটেছে দেখলে মনটা কেমন ভালো হয়ে যায়।'

এভাবে নিজের নানা ভাল লাগাকে প্রশ্রয় দিয়ে সময় কাটানোর পরামর্শ দিলেন অভিনেতা। সাহেব আবারও বললেন, 'নিজের ভাল লাগার কাজ করে সময় কাটান। তবে দয়া করে বাড়ি থেকে বের হবেন না। প্রয়োজন হলে কোয়ারেন্টাইনে থাকুন। কয়েকটা দিনের ব্যাপার। আমি মনে করি, ভারতীয় হিসেবে, বাঙালি হিসেবে, মানব জাতি হিসেবে, করোনার বিরুদ্ধে এই লড়াইটা আমাদের চালিয়ে যেতে হবে এবং আমি বিশ্বাস করি এই লড়াইয়ে আমরা জয়ী হবো।'

Published by:Akash Misra
First published:

Tags: Actor, Kolkata, News, Saheb Bhattachariya, Tollywood

পরবর্তী খবর