সারা গায়ে মশার স্প্রে লাগিয়ে দিয়েছিলেন অজয় দেবগন : রুদ্রনীল ঘোষ

সারা গায়ে মশার স্প্রে লাগিয়ে দিয়েছিলেন অজয় দেবগন : রুদ্রনীল ঘোষ
  • Share this:

SREEPARNA DASGUPTA

আজকাল ইন্ডাস্ট্রির ছবিটা অনেকটাই বদলে গিয়েছে। অভিনেতারা যাঁরা বাংলাতে কাজ করছেন তাঁরাই আবার সমান তালে মুম্বাইতে কাজ করছেন বা কাজ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সেই তালিকাতে অবশ‍্যই নতুন নাম রুদ্রনীল ঘোষ।

বহুদিন আগে নাসিরুদ্দিনের সঙ্গে তাঁর প্রথম হিন্দি ছবি করেছিলেন রুদ্রনীল। যদিও সেই ছবি বিশেষ কিছু কারণের জন‍্য আর রিলিজ হয়নি। তারপরে কেটে গিয়েছে অনেকদিন। আবারও আরেকটা ভাল ছবির অফার এলো রুদ্রনীলের কাছে। এবারের ছবিটা অজয় দেবগনের সঙ্গে। ছবির নাম ‘ময়দান’। বেশ কিছুদিন আগে এই শহরেই ছবির শুটিং করে গেলেন অজয়। আর এই ছবিতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা যাবে রুদ্রনীলকে। প্রায় সব সিনেই অজয়ের সঙ্গে থাকবেন রুদ্র। কেমন ছিল সেই অভিজ্ঞতা? জানালেন রুদ্রনীল...

অজয়ের সঙ্গে কাজ করে কেমন লাগল?

রুদ্র: যাঁরা বম্বে থেকে আসেন তাঁদের থেকে শেখা উচিৎ হাম্বলনেস কাকে বলে। অজয়জি এত বড় স্টার কিন্তু এক বারের জন‍্যেও তার কোনও লেশমাত্র প্রকাশ পায়না কাজের সময়।

তাইনাকি? এরকম ব‍্যাপার নাকি?

ভাবতে পারবে না কিরকমের ডাউন টু আর্থ। উনি হচ্ছেন একেবারে পারফেক্ট কো-আ‍্যকটার বলতে যা বোঝায় ঠিক তাই।

কেন কি এমন দেখলে?

আচ্ছা তাহলে শোনো। এই ধরো আমি ওর সঙ্গে পর পর সিন করছি। তার মধ‍্যেই একটা মাছি এসে আমাকে অনেক্ষণ ধরে বিরক্ত করছিল। তাতে অজয়েজির কনসেনট্রেশনও ব‍্যহত হচ্ছিল। কিচ্ছুক্ষণ দেখার পরে নিজের আ‍্যসিসট্যান্টকে বললেন মশার স্প্রে আনতে। নিজেই স্প্রে করে দিলেন আমার সারা গায়ে। আবার একদিন আমার ক্লোজ শট চলছিল। আমাকে কিউ দিতে হবে। অজয়জি নিজেই বললেন আমি দিচ্ছি কিউ। অনেক বার টেক হল আমার। বললাম সরি স্যার অনেকগুলো টেক হয়ে গেল। অজয়জি বললেন, সরি কিসের জন‍্য? আমি এবারে শটে যাচ্ছি, দেখো আমার কত গুলো রিটেক হয়। ভাবা যায় কত হান্বল হলে কেউ এরকম কথা বলতে পারে।

মুম্বইতে কাজ করছে এমন কারুর থেকে পরামর্শ নিচ্ছ নাকি?

হ্যাঁ সেটাতে আমাকে যিশু খুব সাহায্য করেছে ৷ তার কারণ আমার অনেক আগে থেকে ও মুম্বইতে কাজ করছে। ওর সঙ্গে আমি অনেক কিছু ডিসকাস করি।

আর কোন কোন ছবির অফার আছে?

‘লাল সিং চাড্ডা’র আমার কাছে অফার ছিল ৷ ছেড়ে দিতে হল কারণ আমি ‘ময়দান’ করছিলাম। আরও বেশ কয়েকটা কথা চলছে। কিন্তু ‘ময়দান’ করার পরে এখন একটা বেঞ্চমার্ক মেনে চলতে হবে। তার থেকে কম কিছুর অফার এলে না করে দিতে হবে। এখন জীবনের এমন একটা স্টেজে আছি যেখানে বেছে বেছে কাজ করতে চাই। ভাল কাজ করতে চাই।

কী চরিত্রে আছ তুমি ময়দানে ?

দেখো কিছু এখন বলা বারণ তবে এইটা বলতে পারি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা চরিত্রটা দেখা যাবে। কিন্তু সেটা কোনও ফুটবলারের চরিত্র নয় এই টুকু বলতে পারি।

First published: 03:26:02 PM Jan 04, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर